‘অনিয়ম-দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকবে হাওর বাঁচাও আন্দোলন’

হাওরবাসীর অধিকার আদায়ের লক্ষে গড়ে ওঠা ‘হাওর বাঁচাও আন্দোলন’ হাওরপাড়ের কৃষি ও শ্রমজীবী মানুষের পক্ষে বলিষ্ট ভূমিকা পালন করে যাবে। পাশাপাশি বাঁধ নির্মাণসহ কৃষিখাতে সরকারি বরাদ্দে যে কোন ধরনের অনিয়মের বিরুদ্ধেও সচেষ্ট থাকবে সংগঠনটি। শুক্রবার বেলা ১১ টায় শহরের লতিফা কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় এই প্রত্যয় ব্যক্ত করেন সংগঠনের দায়িত্বশীলরা।
সংগঠনের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বিজন সেন রায়ের সঞ্চালনায় এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় সংগঠনের গঠনতন্ত্র সংশোধন করে পূর্বের ‘হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন’ এর নাম পরিবর্তান করে ‘হাওর বাঁচাও আন্দোলন’ নামকরণ করা হয়।
এছাড়া, সরকারিভাবে কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ অভিযানে প্রকৃত কৃষকদের কাছে থেকে ধান ক্রয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সরকারি বিভাগের প্রতি আহ্বান জানানো হয় সভা থেকে। পাশাপাশি সংগঠনের একটি মনিটরিং দল এই কাজে খোঁজখবর নিয়ে কোথাও অনিয়ম দেখলে তাৎক্ষণিক বিষয়টি প্রশাসনকে জানানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, হাওর বাঁচাও আন্দোলনের কার্যকরী সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান, সহ-সভাপতি ও জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ইউসুফ আল আজাদ, যুক্তরাজ্য প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা আহবাব চৌধুরী, সংগঠনের সহ-সভাপতি সুখেন্দু সেন হারু, অ্যাডভোকেট স্বপন কুমার দাস রায়, উপদেষ্টা বিকাশ রঞ্জন চৌধুরী ভানু, রমেন্দ্র দে মিন্টু, ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা মালেক হুসেন পীর, সদস্য ইয়াকুব বখত বহলুল, অ্যাডভোকেট সাজ্জাদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সালেহীন চৌধুরী শুভ, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহল আমিন, কুদরত পাশা, এমরানুল হক চৌধুরী, নির্মল ভট্টাচার্য্য, মাসুম হেলাল প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি