অপরাধ দমনে নৌপথেও কঠোর নজরদারী করা হবে -পুলিশ সুপার

স্টাফ রিপোর্টার
জেলার সুরমা নদীসহ গুরুত্বপুর্ণ সকল নদী ও দুর্গম হাওরাঞ্চলে চাঁদাবাজী ও অপরাধমূলক কর্মকা- প্রতিরোধে সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানাসহ ৪ থানার পুলিশকে দ্রুত গতির নৌকা প্রদান করেছেন পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান।
দ্রুত গতি সম্পন্ন এসব নৌকা থানার আওতাধীন নদী ও হাওর এলাকায় নিয়মিত টহল পরিচালনা করবে বলে জানিয়েছে জেলা পুলিশ সুপার।
সোমবার দুপুরে সুনামগঞ্জ শহরের লঞ্চঘাট এলাকার পুলিশ ফাড়ি সংলগ্ন সুরমা নদীর তীরে সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্য (ওসি) মো. শহিদুল্লাহ’র কাছে নৌকার চাবি হস্তান্তর করেন পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান।
সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার পাশাপাশি জেলার ধর্মপাশা, মধ্যনগর ও তাহিরপুর থানায়ও এসব নৌকা হস্তান্তর করা হয়। তিন লক্ষ টাকা ব্যয়ে প্রতিটি ইঞ্জিন চালিত নৌকা তৈরি করা হয়েছে। নৌকা হস্তান্তর অনুষ্ঠান শেষে মোনাজাত করা হয়।
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) মাহবুবুর রহমান, জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ওসি (ওয়াচ) লতিফুর রহমান, গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি কাজী মুক্তাদীর হোসেন, সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ জেলা পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।
নৌকা হস্তান্তর শেষে পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান বলেন,‘জেলার সকল অঞ্চলের নদী ও হাওরাঞ্চলের নিরাপত্তা জোরদারে এসব নৌকা দিয়ে পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন। নৌ- রুটে চাঁদাবাজী ঠেকাতে দ্রুতগতি সম্পন্ন এসব নৌকা দিয়ে বিশেষ টিম টহল কাজ পরিচালনা করবে। অপরাধ দমনে স্থলভাগের ন্যায় এসব নৌযান দিয়ে জলভাগেও কঠোর নজরদারী বৃদ্ধি করা হবে।’