অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযানের নির্দেশ

সু.খবর ডেস্ক
তৃতীয় দফায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের (ইউপি) আগে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে মাঠপর্যায়ের পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ সদর দপ্তর। স্থানীয় এ নির্বাচন ঘিরে সহিংসতায় ২৮ জনের প্রাণহানির পরিপ্রেক্ষিতে এ নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ সদর দপ্তর।
মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) পুলিশ সদর দপ্তরের মুখপাত্র ও সহকারী মহাপরিদর্শক মো. কামরুজ্জামান বলেন, অবৈধ অস্ত্রের যথেচ্ছ ব্যবহার বন্ধে মাঠপর্যায়ে সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তৃতীয় দফায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আগেই এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।
২৮ নভেম্বর এক হাজার সাতটি ইউনিয়নে তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে দেশের ৮৩৪ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয় গত বৃহস্পতিবার। ওই ভোট ঘিরে সহিংসতায় একজন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীসহ ১৩ জন নিহত হয়। নির্বাচন ঘিরে প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে। এসব সহিংসতায় এ পর্যন্ত ২৮ জন নিহত হয়েছেন।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত রোববার জুম মিটিংয়ে এ দেশের বিভিন্ন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (ওসি) সঙ্গে কথা বলেছেন পুলিশ সদর দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। এসময় ওসিদের থানায় থাকা ‘গান রেজিস্ট্রার’ নিয়মিত পরীক্ষার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে পুলিশ সদর দপ্তরের একজন কর্মকর্তা বলেন, একটি নির্দিষ্ট এলাকায় কতজনের কাছে বৈধ অস্ত্র আছে, সে সম্পর্কে থানার অবহিত থাকার কথা। সব থানার কর্মকর্তারা এই ‘গান রেজিস্ট্রার’ পরীক্ষা করছেন না বলে মনে করছেন তারা। এ ধরনের নির্বাচনে অনেকে বৈধ অস্ত্র দেখান এবং অস্ত্র নিয়ে ঘোরাফেরাও করেন। বিষয়গুলো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ এড়িয়ে যাচ্ছে। সে কারণেই থানাগুলোকে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।
ঢাকার বাইরের একাধিক পুলিশ সুপার বলেছেন, অবৈধ অস্ত্রবিরোধী অভিযান পুলিশের নিয়মিত কাজ। এর আগেও বিভিন্ন অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান হয়েছে। নির্বাচনের আগে অবৈধ অস্ত্রের সন্দেহভাজন মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নজির রয়েছে। সেই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তারা আরও জানিয়েছেন, জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে নির্বাচনের আগে বৈধ অস্ত্র মালখানায় জমা দেওয়ার নির্দেশনাও জারি করা হয়েছে।
সূত্র : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম