আগামীকাল যোগদান করবেন জেলার ৬১৩ শিক্ষক

বিশেষ প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নবনিযুক্ত ৬১৩ জন সহকারী শিক্ষকের যোগদানপত্র আগামীকাল রোববার একই দিনে গ্রহণ করা হবে। এর পরদিন থেকেই তাদেরকে পদায়ন করা হবে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
গত ২৩ জানুয়ারি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে নবনিযুক্ত সহকারী শিক্ষকদের কাছে পাঠানো চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছিল ১৬ ফেব্রুয়ারি তারিখে একই দিনে জেলার ৬২১ জন নবনিযুক্ত সহকারী প্রাথমিক শিক্ষকের যোগদান গ্রহণ করা হবে। কিন্তু ১৩ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের এক চিঠিতে জেলার প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানানো হয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রাজস্বভুক্ত সহকারি শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮’এর ফলাফলে যথাযথভাবে বিভিন্ন কোটা সংরক্ষণ হয়নি মর্মে মহামান্য হাইকোর্টে মামলা থাকায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নবনিযুক্ত প্রাথমিক শিক্ষকদের নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত করা হলো।
১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সুনামগঞ্জ জেলার নিয়োগপ্রাপ্ত ৬২১ জন সহকারি শিক্ষকের মধ্যে ৬১৩ জন প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে জমা দেন। ৮ জন অন্য চাকুরিতে ইতিপূর্বে যোগদান করায় এরা কাগজপত্র জমা দেন নি।
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সংস্থাপন বিভাগের উপপরিচালক মো. দেলোয়ার হোসেন বৃহস্পতিবার বিকালে সুনামগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবরে পাঠানো চিঠিতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে নবনিযুক্ত সহকারী প্রাথমিক শিক্ষকদের যোগদান কার্যক্রম সম্পন্ন করে পদায়নের নির্দেশ দেন। এই চিঠি নাটোর, সিরাজগঞ্জ, মাদারিপুর, শরিয়তপুর, গোপালগঞ্জ, চাঁদপুর, পটুয়াখালি, সুনামগঞ্জ, সিলেট, লালমনিরহাট’র জেলার জেলা প্রশাসকদের দেওয়া হয়েছে। চিঠির অনুলিপি দেওয়া হয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবের একান্ত সচিবকে, রাজশাহী, ঢাকা, চট্টগ্রাম, রংপুর, সিলেট ও বরিশাল বিভাগের প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের বিভাগীয় উপপরিচালককে এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে সহকারী পরিচালককে।
সুনামগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জিল্লুর রহমান বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উর্ধ্বতনরা জানিয়েছেন, নবনিযুক্ত প্রাথমিক শিক্ষকদের নিয়োগ বিষয়ে দায়ের করা ৩ টি রিটই উচ্চ আদালত স্থগিত করেছেন। এজন্য আগামী রোববারই সুনামগঞ্জের ৬১৩ জন শিক্ষকের যোগদানপত্র গ্রহণ করা হবে। এর পরদিন থেকে তাঁদেরকে পদায়নও করা হবে। তিনি নবনিয়োগকৃত সকল সহকারী শিক্ষকদের রোববার জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে এসে যোগদান করার অনুরোধ করেন।