আব্দুজ জহুর সেতুর এপ্রোচে ট্রাক চাপায় বৃদ্ধের মর্মান্তিক মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার
শহরের আব্দুজ জহুর সেতুর পশ্চিম অংশের এপ্রোচে ট্রাক চাপায় ফয়জুল হক (৬৫) নামের এক বৃদ্ধের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকাল পৌনে ৯ টায় সুনামগঞ্জ-তাহিরপুর সড়কে সেতুর পশ্চিম অংশে এই দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত ফয়জুল হক সেতুর পার্শ্ববর্তী কুতুবপুর গ্রামের বাসিন্দা। খবর পেয়ে বিশ্বম্ভরপুর থানা পুলিশ ঘাতক ট্রাকসহ চালক আতাউর রহমান (৩৬) কে আটক করেছে। তার বাড়ি সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের ভোরদেও গ্রামে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ঘাতক ট্রাক চালকের শাস্তির দাবিতে কয়েক ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখেন।
খবর পেয়ে পুলিশ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ট্রাক চালকের বিরুদ্ধে শাস্তি ও স্পিডব্রেকার স্থাপনের আশ্বাস দিলে অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। এ ঘটনায় ঘাতক ট্রাক চালক আতাউর রহমানের বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জ সদর থানায় মামলা দায়ের করেছেন নিহতের ছোট ভাই নুরুল হক।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শহরতলীর কুতুবপুর গ্রামের বৃদ্ধ ফয়জুল হক সকালে নিজ বাড়ি থেকে শহরের মল্লিকপুর বাসস্ট্যান্ডে ছেলের দোকানে আসছিলেন। গ্রামের রাস্তা থেকে ঢালু বেয়ে সেতুর এপ্রোচে উঠে রাস্তা পারাপারের সময় নারায়নগঞ্জ থেকে বিশ্বম্ভরপুরগামী মালবাহী ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-২০-১১৬১) তাকে চাপা দিয়ে দ্রুত চলে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। ট্রাকের চাপায় নিহত ফয়জুল হকের শরীরের অঙ্গ প্রত্যঙ্গ টুকরো টুকরো হয়ে সড়কে ছিটকে পড়ে। এরপর স্থানীয়রা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার, সদর থানার ওসি, স্থানীয় গৌরারং ইউপি’র চেয়ারম্যান। ট্রাক চালকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা ও সেতুর এপ্রোচে স্পিড ব্রেকার স্থাপনের আশ্বাস দিলে অবরোধ প্রত্যাহার হয়। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে দুপুরে পরিবারের লোকজনের কাছে হস্তান্তর করেছে।
গৌরারং ইউপি চেয়ারম্যান ফুল মিয়া জানান, সেতুর এপ্রোচের পাশে কুতুবপুর গ্রাম। গ্রাম থেকে লোকজন এপ্রোচের ঢালু বেয়ে রাস্তার উঠা ও ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পারাপার হন। এপ্রোচে দ্রুত স্পিড ব্রেকার ও জেব্রা ক্রসিং না দিলে দুর্ঘটনা রোধ করা সম্ভব হবে না।
সদর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন,‘বৃদ্ধ ফয়জুল হক বাড়ি থেকে সুনামগঞ্জ শহরে আসার পথে বেপরোয়া গতিতে চলা ট্রাকের চাপায় মারা গেছেন। ট্রাকসহ চালককে আটক করা হয়েছে। লাশের ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এঘটনায় আটককৃত চালকের বিরুদ্ধে নিহতের ছোট ভাই বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।’
সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রদীপ সিংহ বলেন,‘ ট্রাক চাপায় বৃদ্ধের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। বিক্ষুব্ধ লোকজন সড়ক অবরোধ করেছিলেন। দুর্ঘটনাকবলিত স্থানে স্পিড ব্রেকার ও জেব্রা ক্রসিং করে দেয়া আশ্বাস দেয়ার পর অবরোধ প্রত্যাহার হয়েছে।’