আমার শহর

সুখেন্দু সেন

সুরমার বাঁকা দেহ,
জল ছলকল্ রূপ টলমল্
তীরে তার নিরীহ শহর
কখনও বিরহী হয় উদাস জ্যোছনায়
কবি আর কবিতায়।
মরমী সুরের টানে দোলে ওঠে
আকাশ নোয়া হাওর
দূর পাহাড়ে লাগে তার রেশ
অবিরল বৃষ্টি আর মেঘের ঘোমটায়
লাজনত বধুূ
শরতের ঝলমল আকাশ তলে
হঠাৎ সপ্রতিভ হয়ে খিলখিল হাসে,
রৌদ্র তাপে জ্বলে।

সে নদী বহে চলে
শীত গ্রীষ্ম বর্ষায় খরায় বানে,
কখনো ক্ষীণাঙ্গী তন্বী ভরা যৌবনে।
সুরমায় পা ডুবিয়ে
কূলে জেগে রয়
জ্যোৎনা ভেজা মায়াময়
আমার শহর
যুগযুগান্তর।
স্মৃতি বিস্মৃতিতে,স্বপ্ন জাগরনে
শান্তি সংগ্রামে,বিদ্রোহ বিপ্লবে
কবিতায় গানে
জেগে থাকে প্রাণে প্রাণে
নিরন্তর।