ইউএনওদের জরুরী নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার
অতিবৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী আগামী ২৪ ঘন্টায় আরো পানি বৃদ্ধির আশংকা প্রকাশ করা হয়েছে। শুক্রবার বিকালে সুরমা নদীর পানির উচ্চতা ৮.২০ সে.মিটার রেকর্ড করা হয়েছে। যা বিপদসীমার ৮৮ সে.মি উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
একারণে দুর্যোগ মোকাবেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের জরুরী নির্দেশনা দিয়েছে জেলা প্রশাসন। শুক্রবার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এই নির্দেশনা প্রদান করা হয়।
নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে দুর্যোগ মোকাবেলায় উপজেলা পর্যায়ে কন্ট্রোল রুম খোলা, কর্মকর্তা কর্মচারীদের সার্বক্ষণিক কর্মস্থলে উপস্থিত থাকা নিশ্চিত করা, স্বেচ্ছাসেবক টিম গঠন করা, ইউপি চেয়ারম্যানদের সাথে যোগাযোগ রাখা, জরুরী পরিস্থিতি মোকাবেলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় কেন্দ্র খোলা, পর্যাপ্ত পরিমাণে চিড়া, গুড়, মুড়ি, বিস্কুট, মোমবাতি, দিয়াশলাই, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট, ফিটকিরি ও খাবার স্যালাইনসহ প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি মজুদ রাখা, ৩ ঘন্টা পর পর জেলা পর্যায়ে বন্যা পরিস্থিতি জানানো, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে মেডিকেল টিম প্রস্তুত রাখা এবং জরুরী ওষুধ ও মেডিক্যাল টিমের সদস্যদের মোবাইল নম্বর সংগ্রহে রাখা, দুর্যোগ পরিস্থিতি সংক্রান্ত হালনাগাদ তথ্য সংগ্রহে রাখা, জরুরী উদ্ধারকারী দল প্রস্তুত রাখা, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুত বিভাগকে সতর্ক রাখা, দাপ্তরিক ওয়েব পোর্টাল ও ফেসবুক পেইজে দুর্যোগ সংক্রান্ত সঠিক পরিস্থিতি আপডেট রাখা, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির দিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখা, এনজিও কর্মীদের সক্রিয় রাখা, ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা চিহ্নিত করা, মাস্টার রোলের ভিত্তিতে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ জানান, দুর্যোগ হলে যাতে মোকাবেলায় সমস্যা না হয়, সেই প্রস্তুতি নিয়েছে জেলা প্রশাসন।