ইকবাল নগরে দুই লরির প্রতিযোগিতা প্রাণ গেল শ্রমিকের

স্টাফ রিপোর্টার
বেপরোয়াভাবে গতিতে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটিবাহী একটি লরি অন্য আরেকটি লরিকে অতিক্রম করার সময় একটি খাদে পরে একজন শ্রমিক নিহত ও সাতজন আহত হয়েছেন।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭ টায় শহরতলীর ইকবাল নগরের হাছনরাজা তোরণের দক্ষিণ দিকে সুনমাগঞ্জ-সিলেট সড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম ভানু দাস (৩০), তিনি সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের ইছাগড়ি গ্রামের সুরঞ্জিত দাসের ছেলে।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, পল্লী বিদ্যুতের খুঁটিবাহী দুইটি লরি শহরে প্রবেশ করছিল। এসময় একটি লরি অন্য আরেকটি লরিকে অতিক্রম করার সময় একটি খাদে পরে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই একজন মারা যায় ও অন্যরা আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হতাহতদের উদ্ধার করে।
লরি দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন, নেত্রকোনার আল আমিন (৪২), বিশ্বম্ভরপুরের রামপুর গ্রামের আপ্তাব উদ্দিন (২২),ইসলামপুর গ্রামের আলম মিয়া (২৪), সদর উপজেলার জানীগাঁও ফকিরনগরের ফজর আলী (৫০) ইকবাল নগরের কোরবান আলী (৩৪), আব্দুর রউফ (৬০), মল্লিকপুরের আল আমিন (২৪)। এর মধ্যে আহত ফজর আলী, কোরবান আরী ও আপ্তাব উদ্দিনকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সদর হাসপাতালে আহত তিন জনকে ভর্তি ও চারজন চিকিৎসা নেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ বাদ্রাসার জাহিদুল হক।
সদর থানার ওসি মো. শহীদুল্লাহ হতাহতের ঘটনা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, ইকবাল নগরে পল্লী বিদ্যুতের খুঁিটবাহী লরি দুর্ঘটনায় এক জন নিহত ও ৭ জন আহত হওয়ার ঘটনা খবর পাওয়া গেছে।’