ইতিবাচক ও আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলবো: মাহমুদুল্লাহ

সু.খবর ডেস্ক
ভক্তদের মন থেকে ভারতের উদ্দেশ্যে টাইগার ক্রিকেটারদের দেশ ছাড়ার সেই দৃশ্যপট মুছে যায়নি। সাকিবের নিষেধাজ্ঞায় মুচড়ে পড়া দল শুষ্ক মুখ নিয়ে বিমানবন্দর ছাড়ে। বায়ু দূষণের শহর দিল্লিতে গিয়ে বেড়ে যায় আরও হাঁস-ফাঁস। সেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দল কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর পরিচালনা এবং মাহমুদুল্লাহর নেতৃত্বে দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। বৃহস্পতিবার তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০তে রাজকোটে জয় লক্ষ্য ধরে নামবে টাইগাররা। দলীয় অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে জানান, সেরা শটটা দিতে মুখিয়ে আছেন তারা।
ভারতীয় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সাকিবের জায়গায় টি-২০ নেতৃত্বভার পাওয়া মাহমুদুল্লাহ বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য অনেক বড় একটা সুযোগ। যখন কোন দল প্রথম ম্যাচে জয় পায় সিরিজ জয়ের সুযোগ তাদের সামনে অনেক বেশি বেড়ে যায়। দলের সবাই খুবই উদ্যমী। আশা করছি আগামী ম্যাচে আমরা আমাদের সেরা শটটাই দেবো।’
বাংলাদেশ দল প্রথম ম্যাচে জয় পাওয়ায় ভারতীয় দল চাপে আছে। অন্যদিকে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ দল। কিন্তু মাহমুদুল্লাহর বক্তব্য অনুযায়ী দল নির্ভার থাকলে, চাপ থাকে না বিষয়টি এমন নয়। বরং আন্তর্জাতিক ম্যাচ মানেই চাপের, ‘শুরু থেকে চাপ আসলে আমাদের উপরই বেশি ছিল। তবে শুরু থেকে আমাদের হারানোর তেমন কিছু ছিল না। এখন আশা করছি আগামী ম্যাচে আমরা সেরাটা দিতে পারবো। তুলে নিতে পারবো আরেকটি জয়।’
বাংলাদেশ দল প্রথম টি-২০ ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে দারুণ ক্রিকেট উপহার দিয়েছে। বোলাররা শক্তিশালী ভারতীয় ব্যাটিং লাইন আপকে স্বস্তিকে থাকতে দেননি। ব্যাটসম্যানরা আবার ভারতের বোলারদের ওপর চাপ ধরে রাখেন। মুশফিকুর রহিম শুধু দুর্দান্ত ইনিংস খেলেননি। হিসেব কষা ইনিংসে ম্যাচের ফিনিশিংও দিয়েছেন। সিরিজ জয়ে চোখ রেখে বৃহস্পতিবার দলের পরিকল্পনা নিয়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ বলেন, ‘আমরা আগ্রাসী ক্রিকেট খেলবো। ইতিবাচব ক্রিকেট খেলবো।’
অধিনায়কের মতে, আমাদের ক্রিকেট অঙ্গনে যে অস্থিরতা ছিল (ধর্মঘট, সাকিবের নিষেধাজ্ঞা) সেখান থেকে ভারতে সিরিজ জয় হবে দেশের ক্রিকেটের জন্য, দলের জন্য বড় একটা প্রেরণা। ভারত নিজেদের মাঠে এমনকি যে কোন জায়গায় খুবই ভালো দল। আগামী ম্যাচেও তাদের হারানোর চেষ্টা থাকবে আমাদের। বোলিংয়ে তারা খুবই ভালো দল। স্পিন এবং পেস বলে অনেক বৈচিত্র আছে। আমরা যদি শুরুর বল থেকেই ভালো খেলি। ভুল না করি এবং মোমেন্টাম আমাদের দিকে নিতে পারি তাহলে আমার মন বলে ম্যাচটা আমাদের পক্ষে আসবে। যারা পরিকল্পনা কাজে লাগাতে পারবে তারাই ম্যাচটা জিতবে।’
দিল্লি এবং রাজকোটের উইকেট এক নয়। বাংলাদেশ কেমন দল নিয়ে নামবে ভারতীয় সাংবাদিকদের সেই প্রশ্নের উত্তর তাই জিউয়ে রাখলেন মাহমুদুল্লাহ। বললেন, ‘সামনের ম্যাচের উইকেট, কন্ডিশন দেখে দল ঠিক করা হবে।’ তবে বাংলাদেশের সাংবাদিকদের প্রায় একই প্রশ্নের উত্তরে বললেন, চেষ্টা থাকবে জয়ী দলের সমন্বয় ধরে রাখার। তবে উইকেট এবং কন্ডিশন দেখে যে কোন সিদ্ধান্ত নিতে হতে পারে।
সূত্র : সমকাল