‘ইলাখান ঘর পাইমু স্বপ্নেই ভাবছি না’

স্টাফ রিপোর্র্টার
‘ইলাখান ঘর কেউ হারিউম্মুরের লাগি দিলাইবা ইটাতো কোনদিন স্বপ্নেই ভাবছি না, শেখ হাসিনা দিয়া বুঝাইয়া দিসইন গরিব মানুষও পাকা ঘরও থাকতো পারে।,
সুনামগঞ্জে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরের মালিকানার কাগজপত্র ও ঘরের চাবি পেয়ে আবেগ আপ্লুত জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের ছিন্নমূল নারী নূর বাহার বেগম সাংবাদিকদের কাছে কথাগুলো বলছিলেন।
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে শনিবার বেলা ১১ টায় ছিন্নমূল ৫০ টি পরিবারের হাতে দুই শতক জমি ও পাকা বাড়ির মালিকানার কাগজপত্র তুলে দেওয়া হয়।
এর আগে এই উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইয়াসমিন নাহার রুমা।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেটের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার ফজলুল কবীর। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শরীফুল ইসলাম, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল, শিক্ষাবিদ পরিমল কান্তি দে, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার নুরুল মোমেন। এছাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হাই, ছিন্নমূল নারী নূর নাহার বেগম অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।
আলোসভার আগে গণভবন থেকে সারাদেশের ৬৬ হাজার ১৮৯ টি পরিবারকে জমি ও ঘরের মালিকানা সমঝে দেবার আনুষ্ঠানিকতা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মাধ্যমে ছিন্নমূল পরিবারের সদস্যদের দেখানো হয়।