উদ্ধার করলো জগন্নাথপুর থানা পুলিশ

জগন্নাথপুর অফিস
ঘর নির্মাণ কাজের জন্য বিকাশে ৪৫ হাজার টাকা পাঠান এমরান মিয়া। কিন্তু ভুলক্রমে বিকাশে প্রেরিত টাকা অন্য একটি সংযোগ বিচ্ছিন্ন মোবাইল নম্বর চলে যায়।
অনেক চেষ্টার পর অবশেষে জগন্নাথপুর থানায় আশ্রয় নিলে পুলিশ প্রযুক্তির সহায়তায় ওই টাকা উদ্ধার করে ররিবার টাকাগুলি হস্তান্তর করা হয়েছে।
পুলিশ জানায়, জগন্নাথপুর পৌরসভার কেশবপুর এলাকার বাসিন্দা সুলতান মিয়ার বিকাশ নম্বরে তার ছোট ভাই এমরান মিয়া ঘর নির্মাণের জন্য ঢাকার মিরপুর থেকে টাকা পাঠাতে গিয়ে ভুলবশত: অন্য নম্বরে পাঠিয়ে দেন। এ নম্বরে যোগাযোগ করলে মোবাইল নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়। এরই প্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিহার সুলতান মিয়া জগন্নাথপুর থানায় সাধারণ ডায়রি করেন। জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমানের নির্দেশে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ওবায়দ্ল্লুাহ জিডি তদন্তের দায়িত্ব নিয়ে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করে বন্ধ থাকা মোবাইল নম্বরের মালিককে খোঁজে বের করে এমরান মিয়ার পাঠানো ৪৫ হাজার টাকা উদ্ধার করেন।
রবিবার উদ্ধারকৃত টাকা মালিকের কাছে বুঝিয়ে দেন জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান।
বিষয়টি নিশ্চিত করে জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, উদ্ধারকৃত টাকা উক্ত মালিকের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে।