উন্নয়ন ও ন্যায় বিচারের জন্য প্রয়োজন শিক্ষা -এমএ মান্নান

দ. সুনামগঞ্জ ও জগন্নাথপুর অফিস
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, ‘ন্যায় বিচারের জন্য প্রয়োজন শিক্ষা, তাই শিক্ষা ছাড়া ন্যায় বিচার করা কঠিন। আওয়ামীলীগ সরকার শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। যে কোন দেশের উন্নতির চাবিকাঠি হল শিক্ষা। তাই দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নতি করার জন্য শহর গ্রামের ভেদাভেদ না করে প্রতিটি স্কুল কলেজকে এমপিওভূক্ত করছে সরকার। আওয়ামী লীগ সরকার রক্তের বিনিময়ে অর্জিত দেশের স্বাধীনতা রক্ষা এবং ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করেছে। গ্রাম অঞ্চলে বিচার সালিশে ন্যায় বিচার হলে ৩০ থেকে ৪০ ভাগ বিভেদ গ্রামেই শেষ করা সম্ভব।’
প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, গরীবের হক মেরে খাবেন না। আগে গরীবের অধিকার রক্ষার চেষ্টা করবেন।’ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানার ওসিকে উদ্দেশ্য করে বলেন আপনাদের অফিসে গরীব অসহায় গ্রামের সহজ সরল মানুষ আসলে তাদেরকে বসতে দিবেন, ধৈর্য্য সহকারে তাদের নালিশ শুনে ব্যবস্থা নিবেন, তাদেরকে অবহেলার চোখে দেখবেন না। সরকারের বরাদ্দকৃত সৌর বিদ্যুৎ, টিউবওয়েল খেটে খাওয়া গরীব অসহায় মানুষ যেন পায়। দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ৫ টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনার দায়িত্ব ‘বিজ’ গ্রহণ করায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে তিনি তাদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
তিনি বলেন ব্যক্তিস্বার্থ, হিংসা, প্রতিহিংসা ত্যাগ করে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হলে নৌকার পক্ষে কাজ করতে হবে, না হয় গরীব অসহায় মানুষের বিরাট ক্ষতি হয়ে যাবে।
রবিবার সকাল ১০ টায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জের ডূংরিয়া উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের হলরুমে বিজ কর্তৃক ৫ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান।
বাংলাদেশ এক্রটেনশন এডুকেশন সার্ভিসেস (বিজ) এর আয়োজনে অনুষ্ঠানে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. হারুন অর রশীদের সভাপতিত্বে ও বিজ এর উপ-নির্বাহী পরিচালক মো. মজিবুর রহমানের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিজ এর নির্বাহী পরিচালক সাইফুল ইসলাম, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুর রহমান সিরাজ, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বজলুর রহমান, জয়কলস ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ মিয়া, প্রবীণ মুরব্বী মাস্টার সিরাজুর রহমান, জেলা কৃষকলীগের সদস্য মাসুক মিয়া, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম শিপন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি তহুর আলী, আওয়ামীলীগ নেতা তেরাব আলী, প্রবীণ মুরব্বী আলমাছ আলী, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী হাসনাত হোসেন, যুবলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক নুর আলম, কৃষকলীগ নেতা মইনুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রয়েল , সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম, আল মাহমুদ সুহেল প্রমুখ।
এদিকে রবিবার জগন্নাথপুর উপজেলার ১০৮টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ল্যাপটপ বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান।
উপজেলা সদরের আবদুস সামাদ আজাদ অডিটরিয়ামে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের আয়োজনে এ ল্যাপটপ বিতরণী সভা অনুষ্ঠিত হয়।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (জগন্নাথপুর উপজেলার দায়িত্বে থাকা ইউএনও) মোহাম্মদ হারুন রশিদ এর সভাপতিত্বে ও সহকারী শিক্ষা কর্মকর্ত রাপ্রু চাই মারমা, শিক্ষক সালেহা পারভীন ও রুহুল আমীনের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সিদ্দিক আহমদ,উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান,সাবেক চেয়ারম্যান আকমল হোসেন,উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব,উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম, হাসান ফাতেমাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ধীরেন্দ্র তালুকদার, জগন্নাথপুর প্রেসক্লাব যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অমিত দেব, চাঁদবোয়ালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম মশাহিদ, উপজেলা সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি আলমগীর হোসেন প্রমুখ।
সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জয়নাল আবেদীন। পরে অতিথিরা বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের হাতে সরকার কর্তৃক বরাদ্দকৃত ল্যাপটপ তুলে দেন।
এদিকে বিকেলে জগন্নাথপুর উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের ঘোষগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মন্ত্রী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি রেজাউল করিম রিজু ও পরিচালনা করেন রমজান আলী ছানা।



আরো খবর