উপজেলায় উপজেলায় বর্ষবরণ

সু.খবর রিপোর্ট
তাহিরপুরে মঙ্গল শোভাযাত্রা ও নানান আয়োজনের মধ্য দিয়ে বাংলা নববর্ষকে বরণ করা হয়েছে। শনিবার সকাল ১০টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বিভিন্ন ব্যানার ফেস্টুুন সংবলিত একটি মঙ্গল শোভাযাত্রা উপজেলার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
পরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে উন্মূক্ত মঞ্চে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
বক্তব্য রাখেন,তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কামরুল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার পূর্ণেন্দু দেব, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর খোকন, উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক হাফিজ উদ্দিন প্রমুখ। অনুষ্টান সঞ্চালনা করেন সাংবাদিক বাবরুল হাসান বাবলু।
আলোচনা সভা শেষে তাহিরপুর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির শিল্পীদের অংশ গ্রহনে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্টান পেিবশনা করা হয়।
বিশ্বম্ভরপুর
বিশ্বম্ভরপুরে ব্যাপক আয়োজনে বর্ষবরণ, শুভ হালখাতা, শ্রীশ্রী চড়ক পূজা ও চৈত্র সংক্রান্তি অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বর্ষবরণ উপলক্ষে গ্রাম বাংলা গরুর গাড়ি, নৌকা, কোলা, মাছ ধরার পলো ইত্যাদি নিয়ে নানা শ্রেণি পেশার লোকজনের অংশগ্রহণে সকালে বিশাল মঙ্গল শোভাযাত্রা উপজেলা সদরের সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
শোভাযাত্রা শেষে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সমীর বিশ্বাস, জনপ্রতিনিধি, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, সুধীজন নববর্ষের মঙ্গল শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।
উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা শাখার আয়োজনে বর্ষবরণ উপলক্ষে সদরে মঙ্গল শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করা হয়।
মঙ্গল শোভাযাত্রার পর উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর উপজেলা শাখার সভাপতি স্বপন কুমার বর্মনের সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন চক্রবর্তী ও জহির আহমদের পরিচালনায় আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।
ধনপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম তালুকদারের উদ্যোগে ধনপুর চিনাকান্দি বাজারে দুই দিনব্যাপি বর্ষবরণ আয়োজন উপলক্ষে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ
দক্ষিণ সুনামগঞ্জে নববর্ষকে স্বাগত জানিয়ে র‌্যালি ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকাল ১০ টায় অনুষ্ঠিত র‌্যালিতে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হারুণ অর রশীদ, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দা সমশাদ বেগম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি তহুর আলী,সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা তেরাব আলী, উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি নুর হোসেন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা সহকারী কর্মকর্তা আব্দুল বারেক, সুজন সুশাসনের জন্য নাগরিক এর উপজেলা সভাপতি রাধিকা রঞ্জন তালুকদার, শিক্ষক আশিশ চক্রবর্তী, বেনু মজুমদার, উপজেলা সমবায় সহকারী নুর হোসেনসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থী।
র‌্যালী শেষে এফআইবিডিভি হলরুমে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।
এদিকে উপজেলা উদীচি শিল্পীগোষ্ঠীর আয়োজনে নববর্ষকে স্বাগত জানিয়ে সকাল সাড়ে ১০ টায় শোভাযাত্রা বের হয়েছে।
অপরদিকে সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত ফ্রেন্ডস ইন ভিলেজ ডেভেলপমেন্ট (এফআইবিডিভি) দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা শাখার আয়োজনে সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া কর্মসূচির উদ্যোগে থানা সংলগ্ন সুলতানপুর করচতলার মাঠে বৈশাখী মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
জগন্নাথপুর
ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় বনাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বাংলা নববর্ষ ১৪২৫কে বরণ করা হয়েছে। বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে পৌর শহরের গুরুত্বপুর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা পরিষদ সন্মেলন কক্ষে আলোচনাসভায় মিলিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ এর সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আকমল হোসেন, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারজানা বেগম, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তদন্ত আশরাফুল ইসলাম,উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মখলিছুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হক,জগন্নাথপুর প্রেসক্লাব যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অমিত দেব,কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন মুন্না, শিক্ষক অনন্ত পাল,সালেহা পারভীন,উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাফরোজ ইসলাম মুন্না প্রমুখ।
দিরাই
দিরাইয়ে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে বাংলা নববর্ষ ১৪২৫ উদযাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, বৈশাখী মেলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও গীতি গ্রন্থ ও কাব্য গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।
উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সহযোগিতায় শনিবার সকাল সাড়ে ৮টায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মঈন উদ্দিন ইকবালের নেতৃত্বে উপজেলা পরিষদের সামন থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে পৌর সদরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে দিরাই উচ্চবিদ্যালয় মাঠে এসে শেষ করা হয়।
সকাল ১০টায় বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করেন ইউএনও মঈন উদ্দিন ইকবাল। এরপর এবারের বইমেলায় প্রকাশিত অবদুর রহমান রচিত গীতি গ্রন্থ আশার আশে গেল জীবন, জাহানারা বেগম রচিত রণ জয়ী রমনী ও স্বদেশ তালুকদারের রচিত কাব্য গ্রন্থ হিমানী বৃষ্টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।
এতে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান তালুকদার. ইউএনও মঈন উদ্দিন ইকবাল, পৌর মেয়র মোশাররফ মিয়া, সহকারি কমিশনার ভুমি শাহিদুল আলম, অ্যাডভোকেট সোহেল আহমদ, প্রেসক্লাব সভাপতি হাবিবুর রহমান তালুকদার, অভিরাম তালুকদার, আরডিও রুহুল আমিন, প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক আবু হানিফ চৌধুরী প্রমুখ।
নারায়ন দাস ও আকতার সাদিকের পরিচলানায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ভাটি বাংলা এলপিএস ফাউন্ডেশন পরিচালনা পরিষদের সদস্য জিয়াউর রহমান লিটন, প্রশান্ত সাগর দাস,শুভ দাস।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অনির্বান, ভাটিবাংলা,কালনী ও মনি মেলা খেলাঘর আসর সহ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের শিল্পীবৃন্দ সংগীত পরিবেশন করেন। বৈশাখী মেলায় ভাটি বাংলা এলপিএস ফাউন্ডেনের বাহারী হস্তশিল্প, ভাটি বাংলা বইঘর, উদীচী স্টলসহ রকমারি স্টল বসে। রবিবার সন্ধায় দুইদিনব্যাপি অনুষ্ঠিত বৈশাখী মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।



আরো খবর