উৎপাদিত ধানের অর্ধেক সরকারিভাবে কেনার দাবিতে সিপিবি’র মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার
হাওরের উৎপাদিত ধানের অর্ধেক সরকারিভাবে ক্রয়, বিদেশ থেকে চাল আমদানী নিষিদ্ধ, ধানের লাভজনক দাম নির্ধারণ এবং সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার দবিতে সুনামগঞ্জে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১ টায় শহরের আলফাত উদ্দিন স্কয়ারে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন,‘সরকার লাখ লাখ কৃষকদের সঙ্গে উপহাস করছে। কৃষকরা উৎপাদিত ধান নিয়ে বিপদে পড়েছে। মণে ২০০ টাকা লোকসান দিয়ে ধান বিক্রি করতে পারছে না। এমন আচরণ অব্যাহত থাকলে কৃষকরা চাষাবাদ করবে না। বিদেশ থেকে চাল আমদানী হচ্ছে, অথচ কৃষকের ধান কেনা হচ্ছে না। সুনামগঞ্জের হাওরে এ বছর ১৩ লাখ ১২ হাজার ৫০০ মে.টন ধান উৎপাদন হয়েছে। অথচ সরকার ধান কিনবে এবার এ জেলা থেকে মাত্র ৬ হাজার ৫০৮ মে.টন । যা একেবারেই হাস্যকর। কৃষক পরিবার প্রতি সরকারকে দিতে পারবেন মাত্র সাড়ে ১৮ কেজি ধান, যার আর্থিক মূল্য মাত্র ৪৮৩ টাকা। এটা কৃষকদের প্রতি প্রহসন ছাড়া আর কিছুই নয়।’
বক্তারা বলেন, সরকার ধান না কেনায় হাওরাঞ্চলে ধান বিক্রি হচ্ছে সাড়ে ৪০০শ’ থেকে সাড়ে ৫০০ শ’ টাকা মণে।’ অবিলম্বে কৃষকদের কাছ থেকে সংগৃহিত ধানের পরিমাণ বাড়িয়ে হয়রানিমুক্ত ও সি-িকেটমুক্ত পরিবেশে ধান সংগ্রহের দাবি জানান বক্তারা।
জেলা সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এনাম আহমেদের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন-জেলা সিপিবির সভাপতি চিত্ত রঞ্জন তালুকদার, হাওরের কৃষি ও কৃষক রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সদস্য নির্মল ভট্টাচার্য, ছাত্রনেতা রইসুজ্জামান, দুর্যোধন দাস, আসাদ মনি, গৌতম দাস প্রমুখ।