একুশের পথ ধরে এসেছে স্বাধীনতা

স্টাফ রিপোর্টার
অমর একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে সুনামগঞ্জ জেলা উদীচীর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়েছে আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। রবিবার বিকালে সুনামগঞ্জ পৌরসভার মুক্ত মঞ্চে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা উদীচীর সভাপতি শীলা রায়, বরুণ রায় স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক রমেন্দ্র কুমার দে মিন্টু এবং জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. শামসুল আবেদীন।
বক্তারা বলেন, সব জাতি তার মাতৃভাষাকে আলগে রাখে। কিন্তু আজকে মনে হয় আমরাই আমাদের মাতৃভাষার মর্যাদা রক্ষা করতে পারছি না। আমাদের মাতৃভাষা, আমাদের প্রাণের ভাষা প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রে অবহেলিত। অথচ মাতৃভাষা বাংলার মর্যাদা প্রতিষ্ঠিত করতে গিয়ে রক্ত ঢেলে দিয়েছিলেন সালাম, রফিক, জব্বার, বরকত সহ নাম না জানা অনেকে। ১৯৫২ সালে মহান ভাষা আন্দোলন ছিল বাঙালির আত্মনিয়ন্ত্রণ অধিকার আদায়ে সুদীর্ঘ সংগ্রামের প্রথম পদক্ষেপ। একুশের পথ ধরে আমরা আজ স্বাধীন সার্বভৌম জাতিরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছি। আজ বিশ্ব জুড়ে দিনটি পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে। বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী একটি দর্শন নিয়ে কাজ করে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ, গণমানুষের অধিকার আদায়ের ব্রতই উদীচীর পথচলার ইশতেহার। উদীচী তার সংগ্রাম ও লক্ষ্যে অবিচল।
সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা সঞ্চালনা করেন জেলা উদীচীর সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম। এরপর অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। জেলা উদীচীর আবৃত্তি বিষয়ক সম্পাদক সুমনা তালুকদার রিম্পি’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ভাষা শহীদদের স্মরণে একুশের গান পরিবেশন করেন প্রসেনজিৎ দে, জহির আহমেদ, অপূর্ব বৈষ্ণব ডাল্টন, বাসনা পাল, নাহিদ আল নেওয়াজ, জয় দেব, জোবায়ের আহমেদ, দিয়া, লিমা, মিথিলা, চাদনী, রিংকি, রায়হান।


এসময় উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত, জেলা মহিলা পরিষদের সভাপতি গৌরি ভট্টাচার্য্য, জেলা উদীচীর সহ সভাপতি উৎপল খাসনবিশ, অঞ্জন চৌধুরী, সঞ্চিতা চৌধুরী, সহ সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. প্রসেনজিত দে, সুনামগঞ্জ থিয়েটারের দল প্রধান দেওয়ান গিয়াস চৌধুরী, জেলা যুব ইউনিয়নের সভাপতি মো. আবু তাহের মিয়া, জেলা উদীচীর সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম মাহবুব, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি আসাদ মনি, রঙ্গালয় সুনামগঞ্জের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান, জেলা উদীচীর নাট্য বিষয়ক সম্পাদক পুলক রাজ সহ জেলা উদীচী এবং সুনামগঞ্জের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্য এবং বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।