এবার আসামীদের গরু লুট

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি
দোয়ারাবাজারে আসামীদের বাড়ি-ঘরে হামলা করে ৩টি গরু লুট করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের টেবলাই গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে । পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঐ তিনটি গরু ক্রেতার কাছ থেকে উদ্ধার করেছে।
টেবলাই গ্রামের লায়েছ মিয়ার তিনটি গরু বাড়ির কাছে জমিতে ছিল। এসময় গ্রামের বুরহান উদ্দিন হত্যা মামলার বাদী রাজ্জাক মিয়ার লোকজন লায়েছ মিয়ার তিনটি গরু জোর করে নিয়ে যায়। পরে ছাতকের গরু বেপারীর কাছে বিক্রি করে দেয়। গ্রামের লোকজনের অভিযোগ পেয়ে দোয়ারাবাজার থানার পুলিশ ছাতক উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের বেতুরা গ্রামের গরু ব্যবসায়ী ছালেহ আহমেদের বাড়ি থেকে গরু ৩টি উদ্ধার করে। ঘটনার পর থেকেই আত্মগোপনে রয়েছে হত্যা মামলার বাদী রাজ্জাক মিয়ার লোকজন।
জানা যায়, এর আগেও টেবলাই গ্রামের বুরহান উদ্দিন হত্যা মামলা এজহারভুক্ত আসামীদের বাড়িঘর ও তাদের চাষকৃত পুকুরের মাছ রাতের আধারে লুট করে নিয়ে যায় মামলার বাদী রাজ্জাক মিয়ার লোকজন। এ ব্যাপারে ১৬ মে গ্রামের বাচ্চু মিয়া বাদি হয়ে দোয়ারাবাজার থানায় গ্রামের ৪৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
দোয়ারা থানার ওসি সুশীল রঞ্জন দাস বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ছাতক উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের বেতুরা গ্রাম থেকে গরু ৩টি উদ্ধার করেছে। গরুগুলো এখন থানার হেফাজতে রয়েছে।