এমপি রতন’কে লিগ্যাল নোটিস

স্টাফ রিপোর্টার
জামালগঞ্জের ফেনারবাঁক ইউনিয়ন কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ স্থগিত রাখার অনুরোধ করায় সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননাকর ডিও লেটার প্রত্যাহার করার অনুরোধ জানিয়ে একটি লিগ্যাল নোটিশ প্রেরণ করা হয়েছে।
উপজেলার ফেনারবাঁক গ্রামের আবুল কাশেম চৌধুরীর আবেদনের প্রেক্ষিতে ড. জহির এন্ড এসোসিয়েটস থেকে গত ১২ আগষ্ট সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনকে এই লিগ্যাল নোটিশ প্রেরণ করা হয়।
আইনী সংস্থা ড. জহির এন্ড এসোসিয়েটসের অ্যাড. মুশতাক আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত উক্ত আইনি নোটিশে উল্লেখ করেছেন, সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন গত ৩১/৭/২০১৮ তারিখে একটি ডিও লেটার (আধা সরকারিপত্রের) মাধ্যমে জামালগঞ্জ উপজেলার ফেনারবাঁক ইউনিয়ন কমপ্লেক্স ভবন নির্মান স্থগিত রাখার জন্যে এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলীকে অনুরোধ জানান।
লিগ্যাল নোটিশে আইনজীবী আরও উল্লেখ করেন, এই কমপ্লেক্স ভবন ফেনারবাঁক গ্রামে নির্মাণ করার জন্য বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট, মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগের নির্দেশনা রয়েছে। রীট পিটিশন নং ১৮১৭/২০১০ অনুযায়ী মাননীয় আদালত এই আদেশ দেন এবং এই আদেশের আলোকেই গত ২৩ এপ্রিল ২০১৮ স্থানীয় সরকার বিভাগের ইউপি শাখা অবিলম্বে ভবন নির্মানের জন্যে এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলীকে নির্দেশ দেন। সেই অনুযায়ী টেন্ডার আহবান ও ওয়ার্ক অর্ডার দেয়া হয়। কিন্তু সংসদ সদস্য গত ১১/১২/১৬ এবং ৩১/৭/১৮ তারিখে দুই দুইটি ডিও পত্রের মাধ্যমে উক্ত নির্মাণ কাজ স্থগিত রাখার জন্য অনুরোধ জানান। অথচ সংসদ সদস্য ৪/১০/২০০৯ সালে তাঁর নিজের লিখা অপর একটি ডিও পত্রে ফেনারবাঁক গ্রামের পুরাতন ভবনের একই স্থানে নতুন ভবন নির্মাণের জন্যে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীকে অনুরোধ করেন। যা তিনি পরবর্তি ডিও পত্রে গোপন করেছেন।
আইনজীবী আইনি নোটিশে উল্লেখ করেন, সংসদ সদস্যের দুইটি ডিওপত্রই আদালতের রায়কে অমান্য করা হয়েছে। শুধু তাই নয় সরকারের উন্নয়ন প্রক্রিয়া ব্যহত রাখার জন্য ইচ্ছাকৃত প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে সরকারের উন্নয়ন কাজের বিরুদ্ধে নিজেকে দাঁড় করিয়েছেন। এমনকি জনস্বার্থের বিরুদ্ধে হওয়ায় উক্ত ডিও পত্র সংবিধানের পরিপন্থীও। সুতরাং নোটিশ প্রেরণের সাত দিনের মধ্যে ডিওপত্র প্রত্যাহার না করা হলে তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার ও সংবিধান লংঘনের আইনী কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।
এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের মুঠোফোনে গতকাল মঙ্গরবার রাত আটটায় যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।