ওসি বাঁচালেন নবজাতক ও মানসিক ভারসাম্যহীন মায়ের প্রাণ

ধর্মপাশা প্রতিনিধি
মধ্যরাতে যখন মানসিক ভারসাম্যহীন নারী একটি ফুটফুটে ছেলে সন্তান জন্ম দিলো তখন চারপাশ জনমানব শূন্য। এ সময় কয়েকটি কুকুর ঘুরঘুর করছিল সেখানে। কুকুরে হাত থেকে নিজের সন্তানকে বাঁচাতে কাপড় দিয়ে ঢেকে দেয় মা। ফলে অতিরিক্ত কাপড়ের চাপে পড়ে নবজাতকের শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। রক্তাক্ত বেখায়ালী মা সন্তানকে নিয়ে এভাবেই বসেছিল। বিষয়টি একজন চৌকিদারের নজরে আসে। তিনি সাথে সাথে থানার ওসিকে জানান। ওসি স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মিডওয়াইফকে (দক্ষ প্রসব সেবাদানকারী) সাথে নিয়ে সেখানে পৌঁছান এবং মা ও নবজাতককে উদ্ধার করে দ্রুত স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গিয়ে তাদের প্রাণ বাঁচান। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এমন মানবিক কাজটি করেন সুনামগঞ্জের মধ্যনগর মধ্যনগর থানা ওসি জাহিদুল হক।
ওই মানসিক ভারসাম্যহীন নারী দীর্ঘ মধ্যনগর বাজার অবস্থান করছিল। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে দিকে স্থানীয় শহীদ মিনারের সামনের সড়কে একটি ছেলে সন্তান প্রসব করে। পরে ওসি জাহিদুল হক রাত সাড়ে ১১টার দিকে মধ্যনগর মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে তাদের নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা দেন।
মধ্যনগর মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের মিডওয়াইফ প্রিয়াংকা ভৌমিক বলেন, বিষয়টি শোনার পর আমিও ওসি সাহেবের সাথে গিয়ে প্রসব পরবতীর্ দিয়েছি এবং স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে এসে প্রয়োজনীয় সেবা প্রদান করেছি।,
মধ্যনগর থানার ওসি জাহিদুল হক বলেন, ‘এখন মা ও ছেলে দুজনেই সুস্থ্য আছে। সমাজসেবা কর্মকর্তার তত্বাবধানে তাদের চিকিৎসার জন্য শনিবার সকালে ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে। ইতোমধ্যে ছেলেটিকে দত্তক নেওয়ার জন্য দুইজন যোগাযোগ করেছেন। এ ব্যাপারে আইনগতভাবে পরবতীর্ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’