ওসি হারুনুর রশীদ চৌধুরীর সতর্কবার্তা

সম্মানীত দক্ষিণ সুনামগঞ্জবাসী
আচ্ছালামু আলাইকুম !

কাজী জমিরুল ইসলাম মমতাজ, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ অফিসঃআমরা আপনাদের জন্য রাস্তায় আছি, আপনারা ঘরে আছেন তো। আপনারা জানেন বর্তমানে করোনা ভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারি আকারে ধারণ করেছ। এই মহুর্তে আমাদের সবাইকে সতর্ক হতে হবে। সচেতন হতে হবে। আপাদের যে সচেতনতা এটাই করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে হাতিয়ার হিসাবে কাজ করবে। ইতিমধ্যে জানেন করোনা ভাইরাস (Covid-19) মহামারি আকারে ধারণ করায় প্রায় বিশ্বের ১৩ লাখ লোক আক্রান্ত হয়েছেন। ৭০ হাজার ৪৬৫ জন ইতিমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন। আমাদের দেশেও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১২৩ জন। এর মধ্যে ১২ জন লোক মৃত্যুবরণ করেছেন। আমাদের এই দুর্যোগময় মুহুর্তে একসাথে কাজ করতে হবে। তাই সচেতনতাই মুল ভূমিকা হিসাবে কাজ করবে। আমি দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার ওসি হিসাবে আপনাদেরকে আজ লাইভে কিছু নির্দেশনা দিতে যাচ্ছি। আমি ও আমার টিম দিন রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। আপনাদের জন্য আপনাদেরকে ভালা রাখার জন্য। বার বার বলবো প্লীজ আপনারা ঘরে থাকুন। আমরা রাস্তায় আছি আপনাদের জন্য। আপনারা কি আমাদের জন্য ঘরে থাকতে পারছেন না, নাকি ঘরে থাকে পারবেন না। আপনাদের ঘরে থাকা আপনাদের পরিবারকে সুরক্ষিত করবে। আপনাদের ঘরে থাকা এ সমাজকে সুরক্ষিত রাখবে এবং এই দেশকে সুরক্ষিত করবে। দেখুন আমরা আপনাদের এলাকায় দিন রাত কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের টিম গুলোও আপনাদের এলাকায় কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের প্রিয়মুখ গুলো আমার সহধর্মীনি সে চেয়ে থাকে আমরা কখন বাসায় যাবো। কিন্তু আমরা বাসায় যেতে পরিছি না। আমার ১৩ বছরে সন্তান চেয়ে আছে আমার দিকে। বাবা কখন তুমি বাসায় আসবে। আমি যেতে পারতেছি না। শুধু আপনাদের জন্য । আমার কি ইচ্ছা হয় না ঘরে যাবার। কিন্তু আমি যাচ্ছি না। আমি ঘরে গেলে আমার কাছ থেকে আমার পরিবার করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার সম্ভবনা। আপনাদের জন্য, দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য। তাই আপনারা কেন ঘরে থাকতে পারবে না। আর এই সচেতনতাই এটা হাতিয়ার হিসাবে কাজ করবে। করোনাভাইরাসের বিপক্ষে লড়াইয়ে জেতার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তিনি, ‘আমি আর আমার পরিবার সব নিয়ম মেনে চলছি। সবাই দায়িত্ব মেনে চললে আমরা এ লড়াইয়ে জিতব ইনশাআল্লাহ