কড়া রোদের সম্ভাবনা নেই

স্টাফ রিপোর্টার
হাওরের পাকা ধান কাটা ও মাড়াই শেষ না হলেও প্রকৃতি অনুকূলে না থাকায় কৃষকরা চরম বিপাকে পড়েছেন। টানা বৃষ্টিপাতের কারণে ধান শুকাতে পারছেন না কেউ।
আগামী এক সপ্তাহ কড়া রোদের সম্ভাবনা নেই। উল্টোদিকে এক সপ্তাহ পর থেকে নিয়মিত ভারী বৃষ্টিপাতের আশংকা রয়েছে বলে জানিয়েছে সিলেট আবহওয়া অফিস।
রোদের অভাবে ধানের পাশাপাশি গবাদিপশুর জন্য খড় শুকাতে পারছেন না কৃষকেরা। মাড়াই, কাটা ও শুকানোর খলায় ধান পড়ে থাকতে থাকতে চারা গজাচ্ছে। কারো কারো ধান পচে-গলে যাচ্ছে।
রোদের
অভাবে হাওরপাড়ের বোরো কৃষকরা চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। রোদ না থাকায় হাওরে ধান কাটা যাচ্ছে না। কাটা ধান মাড়াই করলেও শুকানো যাচ্ছে না। পাশাপাশি ধান পরিবহনের সকল গ্রামীণ সড়কগুলোতে কাদার সৃষ্টি হয়েছে।
সিলেট আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, আজ বুধবার থেকে আগামী ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত ধান ও খড় শুকানোর মত কড়া রোদ থাকার তেমন কোনো সম্ভাবনা নেই। এই সময়টুকু নিয়মিত ভারী বর্ষণ না হলেও প্রতিদিন হালকা ও মাঝারী বৃষ্টিপাত হতে পারে। ১৬ এপ্রিলের পর থেকে পরবর্তী কয়েকদিন নিয়মিত ভারী বৃষ্টিপাত ও নদীর পানি বৃদ্ধি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এরপর বর্ষার মৌসুমী বায়ু প্রবাহিত হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে। তবে চলতি মাসে অকাল বন্যার আশংকা নেই।
সূত্র আর জানায়, গত ২০১৬ সালে জানুয়ারি থেকে মে মাস পর্যন্ত সুনামগঞ্জ-সিলেট অঞ্চলের গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ১৮৮৯ মিলিমিটার। ২০১৭ সালে ওই সময়ের গড় বৃষ্টিপাত ছিল ২০১৯ মিলিমিটার, চলতি বছরে গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৬৬৫ মিলিমিটার।
সিলেট আবহাওয়া অফিসের প্রধান আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী বলেন,‘আবহাওয়ার শতভাগ সঠিক তথ্য সংগ্রহ করা কঠিন। তবে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী এপ্রিল মাসের চলতি সপ্তাহে হাওর অঞ্চলে নিয়মিত বৃষ্টিপাত হবে। ভারী না হলেও হালকা বা মাঝারী বৃষ্টি হবে। এক সপ্তাহ পর থেকে ভারী বৃষ্টিপাত ও নদীর পানি বৃদ্ধির সম্ভাবনা আছে। মৌসুমী বায়ু প্রবাহের কারণে আগাম বন্যা না হলেও বর্ষা চলে আসতে পারে।’