খড়ের ঘরে আগুন লক্ষ টাকার ক্ষতি, আহত ২

আকরাম উদ্দিন
বিশ^ম্ভরপুর উপজেলার সলুকাবাদ ইউনিয়নের মনিপুরী হাটীর বাসিন্দা স্বামী পরিত্যাক্ত মালেকা বিবি’র গো-খাদ্য খড়ের ঘরে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার রাত অনুমান সাড়ে ১১টায় এই আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। এতে লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আগুন নেভাতে গিয়ে ২ জন আহত হয়েছেন। তাঁরা হলেন আজিজুল হক ও দেলোয়ার হোসেন।
মঙ্গলবার দুপুর ২টায় ও ঘটনাস্থলে গিয়ে উঠানে ছড়িয়ে পড়া খড়ে আগুন জ¦লতে দেখা যায়। এসময় স্থানীয় বাসিন্দা মামুন মিয়া, কুলসুমা বেগম, আমেনা খাতুন, রহিমা খাতুন, আজিজুল হক, মহি উদ্দিন, শহীদ মিয়া, জামাল মিয়া, মতলিব মিয়া জানান, রাত তখন সাড়ে ১১টা। হঠাৎ মালেকা বিবি’র চিৎকার শুনে দৌঁড়ে এসে দেখি পুরো উঠান জুড়ে খড়ের ঘরে আগুন। এই আগুন ছড়িয়ে পড়লে কয়েকটি বাড়ি, গরু, ছাগল এবং মুরগীর ফার্মে ক্ষয়ক্ষতিসহ মানুষের ও ক্ষতি হতো। এই জন্য আগুন নেভাতে আশপাশের নারী-পুরুষ সহ প্রায় দুই শত লোক সহযোগিতা করেন। আগুনের ঘটনার সময় তুফান ও প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়েছে। তবুও আমরা পানি দিয়ে এই আগুন নেভাতে চেষ্টা চালিয়ে যাই।
ক্ষতিগ্রস্ত মহিলা মালেকা বিবি জানান, সোমবার রাতে বিদ্যুৎ ছিল না, খুব গরম ছিল বেশি। বারান্দায় পায়চারী করছি। হঠাৎ দেখি অন্ধকারে বাড়ির উঠানে গো-খাদ্য খড়ের ঘরের পাশে থেকে ছেলে বয়সী ১টি লোক দৌঁড়ে পালিয়ে যাচ্ছে। আমি ডাক দেই। সে ডাক শুনে ও থামেনি। তখন আমার কী যেন সন্দেহ হয়েছে। এরপর বারান্দার দরজা বন্ধ করে ঘরের দরজা খোলা রেখে ঘুমানোর জন্য বিছানায় যাই। তখন গ্রীলের ফাঁকে দিয়ে দেখি বেশি পরিমাণে আগুনের আলো। ঘর থেকে চিৎকার দিয়ে দৌঁড়ে বেরিয়ে পড়ি। আমার চিৎকারে আশপাশের কয়েক শত লোক দৌঁড়ে এসে আগুন নেভাতে সহযোগিতা করেন। নিমিষেই আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় পুরো খড়ের ঘর ও সকল খড়। এতে আমার ক্ষতি হয়েছে ১ লাখ টাকার। এর আগে ও একবার আমার মোরগের ফার্মের ক্ষতি করেছে দুর্বৃত্তরা।
বিশ^ম্ভরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুর রহমান বলেন,‘সলুকাবাদ ইউনিয়নের মনিপুরী হাটীতে আগুন লাগার ঘটনায় কেউ কোনো অভিযোগ করেননি। কেউ অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’