গণতন্ত্রের নামে দেশে দলতন্ত্র চলছে

স্টাফ রিপোর্টার
প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও ঐক্য ন্যাপের কেন্দ্রীয় সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্য বলেছেন, ‘গণতন্ত্রের নামে দেশে দলতন্ত্র ও লুটেরাতন্ত্র চলছে। ধনীরা আরও ধনী এবং গরিব মানুষ আরও গরিব হচ্ছে। ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে চার লাখ মানুষের হাতে দেশের সব সম্পদ রয়েছে। দুর্নীতি মহামারি রূপ নিয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দুর্নীতি ও শোষণমুক্ত সমাজ গড়তে হবে।
শনিবার ঐক্য ন্যাপ জেলা শাখার উদ্যোগে আয়োজিত সংগঠনের কর্মী ও শুভাকাঙ্খী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পঙ্কজ ভট্টাচার্য এসব কথা বলেন। পৌর শহরের প্রেসক্লাব মিলনায়তনে দুপুর ১টায় এই সম্মেলন হয়। এতে সংগঠনের বিভিন্ন উপজেলা থেকে কর্মীরা অংশ নেন।
পঙ্কজ ভট্টাচার্য তাঁর বক্তব্যে আরও বলেন, ‘দেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এগিয়ে নিতে হবে। সরকারকে মাথা উঁচু করে বলতে হবে, তাঁরা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সরকার। দুর্নীতি, লুটপাট বন্ধ করতে হবে। দেশে বন্দুকযুদ্ধের নামে মানুষহত্যা বন্ধ করতে হবে। যারা অপরাধী তাদের আইনের আওতায় আনতে হবে। কাউকে বিনাবিচারে হত্যা করা যাবে না। তিনি আরও বলেন, ঐক্য ন্যাপ আগামি জাতীয় নির্বাচনে অংশ নেবে। এ জন্য সারা দেশে সংগঠনকে শক্তিশালী করার কাজ চলছে। তিনি সংগঠনের পক্ষ থেকে আগামি জাতীয় নির্বাচনে সুনামগঞ্জের দুটি আসনে প্রার্থী দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দেন।
সংগঠনের জেলা শাখার সংগঠক ও শাল্লা উপজেলার বাহাড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান রামানন্দ দাসের সভাপতিত্বে কর্মী সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ঐক্য ন্যাপের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়ামের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মোনায়েম নেহেরু। স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা শাখার আহবায়ক গোপেন্দ্র সমাজপতি। এ ছাড়াও বক্তব্য দেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সদস্য কৃষকনেতা অমর চাদ দাস, কেন্দ্রীয় সদস্য অলিজা হাসান, শুভাকাঙ্খীদের মধ্যে বক্তব্য দেন জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি চিত্তরঞ্জন তালুকদার, জেলা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সভাপতি শীলা রায়, সমাজকর্মী নির্মল ভট্টাচার্য, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সংগঠনের জেলা শাখার সদস্যসচিব মির্জা আজিজ।
পরে ১৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। গোপেন্দ্র সমাজপি কে আহ্বায়ক এবং মির্জা আজিজকে সদস্য সচিব করে এই কমিটি ঘোষণা করা হয়।