চলতি নদীর মুখে শ্রমিক নিখোঁজ

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জ শহরতলীর সদরগড় গ্রামের সামনে ধোপাজান-চলতি নদীতে বালি-পাথর পরিবহনকারী দুই নৌকার সংঘর্ষে এক শ্রমিক নিখোঁজ হয়েছেন। বুধবার বিকালে শহরের সুরমা নদী ও চলতি নদীর সংযোগস্থলে এই ঘটনা ঘটে।
নিখোঁজ শ্রমিকের নাম আজিজুল ইসলাম (১৮), তিনি জামালগঞ্জ উপজেলার ভীমখালী ইউনিয়নের ছোট ঘাগটিয়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের ছেলে ও মায়ের দোয়া পরিবহনের শ্রমিক।
জানা যায়, আজিজুল ইসলাম নিজ বাড়ি থেকে সুনামগঞ্জ শহর এলাকায় আসছিল নৌকা দিয়ে বালি নিতে। অপরদিকে বালি ভর্তি নৌকা প্রিন্স অব নেহাল সুনামগঞ্জ থেকে জামালগঞ্জ যাচ্ছিল। সদরগড় গ্রামের কাছে চলতি নদীর মুখে দুই নৌকার মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। বালি ভর্তি প্রিন্স অব নেহালের ধাক্কায় মায়ের দোয়া পরিবহনের শ্রমিক আজিজুল ইসলাম পানিতে পরে নিখোঁজ হন। নৌকার সহযোগি শ্রমিকরা অনেক খোঁজাখুঁিজ করেও তার সন্ধান পায়নি। এসময় স্থানীয়রা প্রিন্স অব নেহালকে আটক করে রাখে। তবে দুর্ঘটনার পরপরই প্রিন্স অব নেহালের সকল শ্রমিক পালিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে প্রিন্স অব নেহালকে জব্দ করে।
ছোট ঘাগটিয়া গ্রামের বাসিন্দা আইনজীবী আব্দুল খালেক জানান, আজিজুল ইসলাম তাদের নৌকা নিয়ে জামালগঞ্জ থেকে সুনামগঞ্জ শহরতলী এলাকায় এসেছিল বালু নিতে। পথে চলতি নদীর মূখে বালি ভর্তি একটি নৌকা তাদের নৌকাকে ধাক্কা দেয়। এসময় আজিজুল ইসলাম নৌকা থেকে পানিতে পরে নিখোঁজ হয়। শ্রমিকরা বালু ভর্তি নৌকাটি আটক করেছে।’
সুনামগঞ্জ সদর থানার ওসি মো. শহিদুল্লাহ বলেন,‘ দুই নৌকার সংঘর্ষের সময় একজন শ্রমিক নদীর পানিতে পরে নিখোঁজ হয়েছেন বলে জানা গেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। বালু ভর্তি একটি নৌযান আটক করা হয়েছে। আজ ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা এসে উদ্ধার অভিযান চালাবে। ’