ছাতকের ওয়াকআউট, ফাইনালে সদর

স্টাফ রিপোর্টার
জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপে প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা। রেফারির পেনাল্টির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ছাতক ওয়াকআউট করায় টুর্নামেন্টের নিয়মানুযায়ী সুনামগঞ্জ সদর উপজেলাকে ২ গোলে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।
বুধবার বিকালে প্রথম সেমিফাইনালে খেলার প্রথমার্ধে গোল শূন্যভাবে শেষ হয়। দ্বিতীয়ার্ধের দ্বিতীয়ার্ধের ২৫ মিনিটে সদর উপজেলার মোস্তফা বল নিয়ে ছাতকের ডি-বক্সের ভিতরে প্রবেশ করেন। এসময় ছাতক উপজেলা দলের গোলকিপার আক্রমনাত্মকভাবে তাকে বাধা দিলে রেফারি ফাউল ধরেন। ডি-বক্সের ভিতরে ফাউল করায় রেফারি পেনাল্টি দিলে ছাতক উপজেলার খেলোয়াড়রা রেফারির সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন এবং মাঠ থেকে বের হয়ে যান। রেফারি তাদের জন্য ২০ মিনিট অপেক্ষা করলেও ছাতক উপজেলা মাঠে না ফেরায় সুনামগঞ্জ সদর উপজেলাকে জয়ী ঘোষণা করা হয়। এদিকে সুনামগঞ্জ সদর ও ছাতক উপজেলার খেলায় হট্টগোল শুরু হলে মাঠে ব্যাপক পরিমানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
ছাতক উপজেলা ফুটবল দলের অধিনায়ক জামিল বলেন, আসলে ফাউলটা ছিলো ডি-বক্সের বাইরে। লাইনসম্যান বাইরে দিলেও প্রধান রেফারি ভিতরে দিয়ে দেয়। প্রধান রেফারী লাইনসম্যানের কথাই শুনেনি।
ছাতক উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক লাল মিয়া বলেন, এটি সত্যি দুঃখজনক। জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপের মতো বড় টুর্নামেন্টে এরকম বাজে রেফারীং আশা করি নাই। আমরা জেলা প্রশাসক বরাবর আপিল করবো।
সদর উপজেলা ফুটবল টিমের কোচ জাকির বলেন, আমার দলের খেলোয়াড় আহত হলে আমি রেফারির অনুমতি নিয়ে মাঠে প্রবেশ করে খেলোয়াড়কে চিকিৎসা দিচ্ছিলাম।