ছাতকে জেএসসিতে ঝিগলী স্কুল ও পিইসিতে মন্ডলীভোগ স্কুল শীর্ষে

ছাতক প্রতিনিধি
ছাতকে জেএসসি পরীক্ষায় উপজেলার ৫হাজার ২শ’ ১৬ পরীক্ষার্থীর মধ্যে কৃতকার্য হয়েছে ৪হাজার ৯শ’ ৬৮ জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫ লাভ করেছে ৩শ’ ৩৬জন শিক্ষার্থী। পাশের হার শতকরা ৯৫.১৪ ভাগ। জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী শতভাগ পাশসহ ৩০টি জিপিএ-৫ পেয়ে ঝিগলী স্কুল এন্ড কলেজ, গোবন্দিগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ৪৭টি জিপিএ-৫ লাভ করে শীর্ষস্থানে রয়েছে ২য় শতভাগসহ ২৬টি জিপিএ-৫ পেয়ে মঈনপুর উচ্চ বিদ্যালয় ৩য় ও ২৫টি জিপিএ-৫ পেয়ে ছাতক বহুমুখী মডেল হাইস্কুল ৪র্থ স্থানে রয়েছে। এ ছাড়া জাউয়া সাউথ-ওয়েষ্ট সালেহ আহমদ স্কুল এন্ড কলেজ ২২টি, চন্দ্রনাথ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ১৭টি, সমতা উচ্চ বিদ্যালয় ১৭টি, এসপিপিএম ১০টি, নতুন বাজার উচ্চ বিদ্যালয়, আনুজানি উচ্চ বিদ্যালয়, বড়কাপন উচ্চ বিদ্যালয়, হাজী আব্দুল খালিক উচ্চ বিদ্যালয় ৯টি করে, মনিরগাতি উচ্চ বিদ্যালয় ও পঞ্চগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয় ৮টি করে জিপিএ-৫ লাভ করেছে। উপজেলার ৪৪টি উচ্চ বিদ্যালয়ের মধ্যে ১৪টি বিদ্যালয় শতভাগ ফলাফল অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। জেডিসি পরীক্ষায় ২৪টি মাদ্রাসার ১হাজার ৪শ’ ৩৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে কৃতকার্য হয়েছে ১হাজার ১শ’ ৬৯জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪জন শিক্ষার্থী। পাশের হার শতকরা ৮১.২৯ ভাগ। পিইসি পরীক্ষায় উপজেলার ৮হাজার ৯শ’ ৪৩ জন শিক্ষাথীর মধ্যে     ৮ হাজার ১শ’ ৬৩ জন শিক্ষার্থী কৃতকার্য হয়েছে। জিপিএ-৫ লাভ করেছে ২০৪ জন শিক্ষার্থী। পাশের হার শতকরা ৯১.২৫ভাগ। শতভাগ ফলাফলসহ ১৯টি জিপিএ-৫ পেয়ে উপজেলার শীর্ষে রয়েছে মন্ডলীভোগ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। ২১ টি জিপিএ পেয়ে বাগবাড়ী মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ২য় স্থানে রয়েছে। এ ছাড়া তাতিকোনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ৮টি, টেটিয়ারচর লতিফিয়া ইসলামীয়া কিন্ডারগার্টেন ৭টি জিপিএ-৫ লাভ করেছে। ইবতেদায়ী পরীক্ষায় ৯শ’৫৭জনের মধ্যে ৮শ’৭৮ জন শিক্ষার্থী কৃতকার্য হয়েছে। জিপিএ-৫ লাভ করেছে ৭জন শিক্ষার্থী। পাশের হার শতকার ৯২.১৪ ভাগ।