ছাতকে নৌকাসহ ৫ চাঁদাবাজ গ্রেফতার

ছাতক প্রতিনিধি
ছাতকে একটি ইঞ্জিন চালিত নৌকাসহ ৫ নৌ-চাঁদাবাজকে আটক করেছে পুলিশ। গত শুক্রবার সকালে শহরের রইছ বোর্ডি এলাকার সুরমা নদী থেকে তাদের আটক করা হয়।
আটককৃত চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে ছাতক থানার এসআই মহিন উদ্দিন বাদী হয়ে ছাতক থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার সকালে মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আটককৃতদের সুনামগঞ্জ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।
গ্রেফতারকৃত চাঁদাবাজরা হল উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের রহমতপুর গ্রামের মৃত নেছার আহমদের পুত্র রুহুল আমিন (৩৮), গনেশপুর গ্রামের আজিজুল হকের পুত্র চয়ন মিয়া (২০), কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ইছাকলস গ্রামের সোনা মিয়ার পুত্র উজ্জল মিয়া (২৩), মৃত জমির উদ্দিনের পুত্র রুবেল মিয়া (২৪) ও ফরিদ মিয়া (৩৫)।
জানা যায়, গোপন সংবাদর ভিত্তিতে ছাতক থানার এসআই মহিম উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সুরমা নদীতে চলাচলরত নৌ-যান থেকে অবৈধভাবে চাঁদা আদায়কারী দুটি ইঞ্জিন চালিত নৌকাকে ধাওয়া করে। দুটি নৌকা যোগে ১০-১২জন সশস্ত্র চাঁদাবাজ সুরমা নদীতে চলাচলরত নৌ-যান থেকে অবৈধভাবে চাঁদা আদায় করছিল। পুলিশের উপস্থিতি আঁচ করতে পেরে চাঁদাবাজরা পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ ধাওয়া করে একটি কাঠবডির নৌকাসহ ৫ চাঁদাবাজকে আটক করে।
এসময় চাঁদাবাজদের কাছ থেকে নগদ ৫ হাজার টাকা ও নৌযান থেকে ছিনিয়ে নেয়া একটি মোবাইল সেট, বাংলাদেশ ইঞ্জিন এন্ড বাল্কহেড ওনার্স এসোসিয়েশন নামে একটি চাঁদা আদায়ের রশিদ বই, নৌকায় রাখা একটি রাম দা ও ৩টি লাঠি উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ধৃত ৫ জনসহ ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে ছাতক থানায় মামলা দায়ের করা হয়।
ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।