ছাতকে পূজা উদযাপন পরিষদের মতবিনিময়

ছাতক প্রতিনিধি
ছাতকে পূজা উদযাপন পরিষদ উপজেলা ও পৌর শাখার উদ্যোগে আসন্ন শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে শহরের রামকৃষ্ণ সেবাশ্রমে উপজেলার ৩৬টি পূজা কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে এ মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাড. পীযুষ ভট্টাচার্য্যরে সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রবীন্দ্র কুমার দাসের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মত বিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি, প্রাক্তন অধ্যাপক হরিদাস রায়, পূজা উদযাপন পরিষদ পৌর শাখার সভাপতি মহন্ত কুমার রায়, উপজেলা কমিটির মহিলা সম্পাদিকা শিখা রানী দে, যুগ্ম সম্পাদক, সাংবাদিক বিজয় রায়, শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারী সেবাশ্রমের সভাপতি অরুন অধিকারী, পূজা উদযাপন পরিষদ পৌর শাখার সহ সভাপতি অরুন দাস, কালীদাস পোদ্দার, শিক্ষক অজয় কৃষ্ণ পাল, চৈতন্য সংঘের নান্টু বর্ধন, চৈতন্য সংঘ পূজা কমিটির সভাপাতি লিটন ঘোষ, তাঁতিকোনা পূজা কমিটির সভাপতি শিক্ষক প্রনব দাস মিটু, ধনিটিলা পূজা কমিটির সভাপতি ব্রজেন্দ্র সিংহ, শিববাড়ী পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সঞ্জিব পাল মুন্না, প্রমুখ।
সভায় সভাপতির বক্তব্যে অ্যাড. পীযুষ ভট্টাচার্য্য ধর্মীয় কৃষ্টি ও সংস্কৃতির আলোকে পূজা-অর্চ্চনা করার পরামর্শ দিয়ে সকল পূজা কমিটির উদ্দেশ্যে বলেন, পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু থেকে স্ব স্ব মন্ডপে নিজস্ব পাহারাদার নিয়োজিত করতে হবে। প্রতিটি পূজা মন্ডপে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থার জন্য বিদ্যুতের পাশাপাশি স্ট্যান্ডবাই বিকল্প জেনারেটর ব্যবস্থা রাখতে হবে। মাইক, স্পীকার, বাদ্যযন্ত্র ব্যবহারে যাতে শব্দ দূষণ সৃষ্টি না হয় এর জন্য এসব সীমিত আকারে ব্যবহার করা বাঞ্ছনীয়। আযান ও নামাজের সময় উচ্চ শব্দ বিশিষ্ট সব ধরনের বাদ্যযন্ত্র, মাইক, স্পীকার বাজানো এবং সব ধরনের আতশবাজী ও পটকা ফুটানো থেকে বিরত থাকতে হবে। প্রতিমা বিসর্জনের সময় সড়ক পরিক্রমা না করে নির্ধারিত সড়ক দিয়ে গন্তব্যে পৌছার জন্য সকল পূজা কমিটির নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানানো হয়।