ছাত্রী অপহরণের চেষ্টা, তাহিরপুরে ৬ জনের নামে মামলা, গ্রেপ্তার ১

তাহিরপুর প্রতিনিধি
তাহিরপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে অপহরণের ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে ভিকটিমের পিতা ৬ জনকে আসামী করে নারী ও শিশু দমন আইনে এই মামলা দায়ের করেন।
মামলায় আসামীরা হলেন উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের বারহাল গ্রামের জাকির হোসেন অরফে ক্বারি মিয়ার ছেলে মাহমুদুল হাসান নাঈম (২০) এবং তার সহযোগী পাশর্^বর্তী বাদাঘাট ইউনিয়নের কামড়াবন্ধ গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে অনিক মিয়া (২৩), একই গ্রামের কালা মিয়ার ছেলে আকিক মিয়া (২১), মাজু মিয়ার ছেলে আবুল হোসেন (২২), দুলাল মিয়ার ছেলে মিলন মিয়া (২১) এবং মোল্লাপাড়া গ্রামের রাকিবুল ইসলাম (২৩)।
বুধবার দুপুরে এ ঘটনায় আটককৃত মাহমুদুল হাসান নাঈমকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে প্রধান আসামী করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।
প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে বাদাঘাট সরকারী কলেজ পরীক্ষার সেন্টারে এবারের এসএসসি পরীক্ষা দিতে যায় এক ছাত্রী। পৌরনীতি পরীক্ষা শেষে বাড়ী ফেরার পথে বেলা পৌনে ১১টার দিকে মোল্লাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তায় উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের জাকির হোসেন অরফে ক্বারীর মিয়ার ছেলে মাহমুদুল হাসান নাঈম এসএসসি পরীক্ষার্থীকে জাপটে ধরে এবং জোরপূর্বক অটোরিকসার মধ্যে তুলে নিয়ে অপহরণের চেষ্টা করে। এসময় ছাত্রী চিৎকার দিলে তার সহপাঠি সহ পথচারীরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে এবং নাঈমকে আটক করে। পরে এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রের দায়িত্বরত পুলিশের হাতে ছাত্রীর সহপাঠি ও পথচারীরা নাঈমকে তুলে দেন।
তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুল লতিফ তরফদার জানান, এ ঘটনায় ভিকটিমের পিতা ৬ জনকে আসামী করে তাহিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় আটককৃত নাঈমকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং তার সহযোগি পলাতক ৫ আসামীকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশ চেষ্টা করছে।