জগন্নাথপুরে ইউএনও পরিচয় দিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে প্রতারণা

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরে ইউএনও পরিচয় দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের হুমকি প্রদান করে চার ব্যবসায়ীর নিকট বড় অংকের টাকা দাবি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার রাতে এই ঘটনা ঘটেছে। মুঠোফোনে ওই প্রতারক ব্যবসায়ীদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের ভয় দেখিয়ে বিকাশে টাকা পাঠানোর কথা বলায় ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়।
জানা যায়, শনিবার রাতে উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সবুজ কান্তি দাসকে ইউএনও পরিচয় দিয়ে রানীগঞ্জ বাজারের বড় বড় কয়েকজন ব্যবসায়ীর মোবাইল নম্বর চায়। তিনি (সবুজ দাস) রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ইছরাক আলীর মুঠোফোন নম্বরে কথা বলার জন্য অনুরোধ জানান। পরে ইউএনও পরিচয়ে ০১৯৪২২৮৬৪৮১ নম্বর থেকে ইছরাক আলীর সাথে কথা বলে ওই প্রতারক। এসময় রানীগঞ্জ বাজারের বড় বড় কয়েকজন ব্যবসায়ীর মোবাইল নম্বর নেয় সে (প্রতারক)। পরে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ইউএনও পরিচয় দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ভয় দেখিয়ে বিকাশে টাকা পাঠানোর কথা বলে এরা (প্রতারক)।
রানীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী রিচমুন কনফেশনারীর পরিচালক পিন্টু দাস বললেন, ইউএনও পরিচয় দিয়ে আমাকে ভয় দেখিয়ে বলা হয়, ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে দোকানে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হবে। এখনই বিকাশে ৭০ হাজার টাকা পাঠাতে হবে। পরে বাজারের আরও কয়েকজন ব্যবসায়ীর সাথে যোগাযোগ করেন তিনি। তারাও একইভাবে ফোন পাওয়ার কথা বলেন।
রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সবুজ কান্তি দাস বলেন, ইউএনও পরিচয় দেওয়ায় তার সন্দেহ হয়। পরে তিনি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যের নম্বর দিয়ে তাঁর সঙ্গে কথা বলার অনুরোধ করেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজেদুল ইসলাম জানালেন, ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এসব প্রতারণা থেকে সাবধান থাকার আহ্বান জানিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি। পাশাপাশি এভাবে কেউ কোন যোগাযোগ মাধ্যমে টাকা চাইলে তাঁর ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার মুঠোফোন নম্বরে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করেন।