জগন্নাথপুরে ইন্টারনেট সেবায় ভোগান্তি

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরে গ্রামীণ ফোনের ইন্টারনেটের গতি বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন গ্রাহকরা। রবিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ইন্টারনেটের গতি নেই বললেই চলে। ফলে সরকারী-বেসরকারী অফিস, ইন্টারনেট নির্ভরশীল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ব্যবহার চরমভাবে ব্যাহত হয়।
জানা যায়, প্রবাসী অধ্যুষিত জেলার অন্যতম সমৃদ্ধ জগন্নাথপুর উপজেলা। এ উপজেলার সিংহভাগ মানুষ যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশে বসবাস করে আসছেন। দেশ-বিদেশ অবস্থানরত আত্মীয় স্বজন, বন্ধু-বান্ধব, শুভানুধ্যায়ের সঙ্গে প্রতিনিয়ত ইন্টারনেট নির্ভর প্রযুক্তির মাধ্যম ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার, ওয়াটসআপ,ইমু, ভাইবা, টুইটারসহ বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার করে যোগাযোগ রাখেন। এ উপজেলার বেশিরভাগ মানুষ গ্রামীণের ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। কিন্তুু গত কয়েকমাস ধরে ইন্টারনেটের গতি কমে গেছে। যে কারণে ভোগান্তিতে পড়েছেন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা।
গ্রাহকদের অভিযোগ, বেশ কয়েক মাস ধরে গ্রামীণের ইন্টারনেটের থ্রিজির গতি নিতান্ত কম পাচ্ছেন গ্রাহকরা। দিনদিন ইন্টারনেটের গতি কমে যাচ্ছে। ইন্টারনেট ব্যবহারকারী মুজিবুর রহমান বলেন, অনেকদিন ধরেই গ্রামীণের ইন্টারনেটের গতি খুব খারাপ। দিন দিন গতি যেন কমেছেই। হঠাৎ করে ইন্টারনেটের গতি কমে যাওয়ায় গতকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেনি কেউ।
জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ রোডস্থ শহিদিয়া কম্পিউটার সেন্টারের পরিচালক বলেন, ইন্টারনেটের গতি একদম কম থাকায় ব্যবসা চরমভাবে বিঘিœত হচ্ছে। জগন্নাথপুর উপজেলা টেকনিশিয়ান অরূপ সরকার বলেন, জগন্নাথপুরের প্রায় ৯৫ ভাগ মানুষ গ্রামীণ ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকেন। প্রতিদিনই হাজার হাজার টাকার এমবি ব্যবহার করছেন গ্রাহকরা। কিন্তু সে তুলনায় সেবা মিলছে না গ্রাহকদের। এমনিতেই বেশ কিছুদিন ধরে গ্রামীণের ইন্টারনেট গতি কম। এরমধ্যে আজকে মাঝে মধ্যে ১০ থেকে ৩০ কেবিপিএস গতি পাওয়া যাচ্ছে। যা ব্যবহারের জন্য সুবিধাজনক নয়। এ সময় আরো কয়েকদিন থাকতে পারে বলে প্রচার করা হয়েছে।