জগন্নাথপুরে জমে উঠছে কোরবানির পশুর হাট

জগন্নাথপুর অফিস
প্রবাসী অধ্যুষিত জগন্নাথপুর উপজেলায় পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে জমতে শুরু করেছে কোরবানির পশুর হাট। এবার পশুর হাটে দেশী গরুর সংখ্যা বেশী হওয়ায় দাম একটু বেশী বলে ক্রেতা বিক্রেতারা জানিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার জগন্নাথপুর পৌর এলাকার কেশবপুর বাজারের পশুর হাটে গিয়ে দেখা যায়, দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিক্রেতারা দেশী গরু নিয়ে বাজারে এসেছেন। ক্রেতারা তাদের পছন্দের গরু ক্রয় করতে ঘুরে ঘুরে বাজার দেখছেন। ঈদের দিন ঘনিয়ে আসার সঙ্গে ক্রেতাদের ভীর বাড়ছে হাটে। বেচাবিক্রির ধুম পড়েনি এখনও।
কোরবানির পশুরহাটে রাজিব চৌধুরী নামে এক ক্রেতা বলেন, এবারের ঈদে দেশী গরু প্রচুর এসেছে। বিদেশী গরু নেই। ছোট ও মাঝাড়ি আকারের গরুর দাম অন্য বছরের তুলনায় একটু বেশী । পছন্দের গরু মিলছেনা। হাট ঘুরে দেখছি, চাহিদা অনুয়ায়ী পাওয়া গেলে ক্রয় করব।
আরেক ক্রেতা শরিফ আহমদ সিপন বলেন, অন্যান্য হাটের চেয়ে এ বছর কোরবানি গরু কম এসেছে। সকাল থেকে ঘুরতে ঘুরতে অবশেষে একটি দেশী জাতের ৪০ হাজার টাকা দিয়ে কিনেছি। আরেকটি কিনব। মনের মতো না হলে ঈদের শেষ হাটে ক্রয় করব।
কিশোরগঞ্জ থেকে গরু নিয়ে আসা জাকির নামে এক বিক্রেতা বলেন, প্রতিবছরেই জগন্নাথপুরসহ সিলেটের বিভিন্ন কোরবানির ঈদের হাটে আমরা দেশী গরু বিক্রি করার জন্য নিয়ে আসে। এবার ৪০টি গরু নিয়ে এসেছি। বিক্রি হয়েছে মাত্র ৫টি। আশা করছি শেষের দিকে বেচাকেনার পুরোদমে ধুম পড়ছে।
আরেক বিক্রেতা তোফাজ্জাল হোসেন বলেন, এবার বাজারে বিদেশী জাতের কোন গরু নেই। দেশী ২৫টি গরু হাটে এনেছি। জমে উঠছে বেচাকেনা। শেষ মুর্হুতে জমজমাট হয়ে উঠবে বেচাবিক্রি।