জগন্নাথপুরে বিএনপি নেতার মাতৃবিয়োগ

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুর পৌরশহরের বাড়ী জগন্নাথপুর এলাকার বাসিন্দা যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতা জগন্নাথপুর-ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাষ্টের ট্রাষ্টি সাবেক ছাত্রনেতা বিশিষ্ট সমাজসেবক এম, এ কাদির ও জগন্নাথপুর পৌর বিএনপির সভাপতি এম,এ মতিনের মাতা মোছাৎ রিজিয়া বেগম (৭৬) ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)।
সোমবার সকাল সাতটার দিকে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের
র্বান ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। রাত সাড়ে ৮টায় জানাজার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
মরহুমার মৃত্যুতে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করে শোক প্রকাশ করেছেন জগন্নাথপুরের প্রবীণ রাজনীতিবিদ সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিদ্দিক আহমদ, বিএনপি নেতা কর্নেল (অব:)) সৈয়দ আলী আহমদ, জেলা বিএনপি নেতা এডভোকেট সৈয়দ মল্লিক মঈন উদ্দিন সোহেল, বিএনপি নেতা এম,এ মালেক খান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান, জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র আব্দুল মনাফ, সাবেক মেয়র ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আক্তার হোসেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তাদীর আহমদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারজানা বেগম, জগন্নাথপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবু হুরায়রা ছাদ মাষ্টার, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আকমল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু, জগন্নাথপুর ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাষ্টের সভাপতি আশিক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মহিব চৌধুরী, প্রতিষ্ঠাতা সাবেক ট্রেজারার এস আই আজাদ আলী, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এডভোকেট জিয়াউর রহিম শাহিন, সাধারণ সম্পাদক কবির আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সোবহান, পৌর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি সালাউদ্দিন মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাজী হারুনুজ্জামান হারুন, সাংগঠনিক সম্পাদক সামসুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি ডা: আব্দুল আহাদ, সাধারন সম্পাদক ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া, উপজেলা শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি নুরুল হক, জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগ সভাপতি কামাল উদ্দিন, জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম’র সম্পাদক অমিত দেব, বার্তা সম্পাদক আলী আহমদ, সাংবাদিক গোবিন্দ দেব, আজহারুল হক শিশু, উপজেলা যুবদল নেতা এম,এম সোহেল, আব্দুল হাসিম ডালিম, দিলু মিয়া, উপজেলা ছাত্রদণ নেতা রুহেল আহমদ, জাহেদ আহমদ, আমীর হোসেন প্রমুখ।
প্রসঙ্গত, গত ৫ এপ্রিল রাতে মোমবাতির আগুনে রিজিয়া বেগম অগ্নিদগ্ধ হলে তাকে প্রথমে সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ১১দিন চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় তিনি মারা যান।



আরো খবর