জগন্নাথপুরে বিদ্যালয়ের স্থান নির্ধারণ নিয়ে উত্তেজনা

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের কান্দারগাঁও গ্রামের বিদ্যালয়ের স্থান নির্ধারণ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। গত মঙ্গলবার বিকেলে জগন্নাথপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কান্দারগাঁও গ্রামে বিদ্যালয় নির্মাণের জন্য জায়গা পরিদর্শন করতে গেলে এলাকার দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।
এলাকাবাসী জানান, ওই ইউনিয়নের বৃহত্তর কান্দারগাঁও গ্রামে ১৯৯৭ সালে মুজিবনগর কান্দারগাঁও বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপন করা হয়। ২০০৫ সাল থেকে আজ অবধি বিদ্যালয়ে পাঠদান চলে আসছে। বিদ্যায়লটি সরকারিকরণে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানের নিকট এলাকাবাসী লিখিতভাবে আবেদন করলে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সচিব বরাবর সুপারিশ করে একটি পত্রে সাক্ষর করেন।
সম্প্রতি জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসন গ্রামে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নির্মাণের জন্য উদ্যোগী হয়। যার প্রেক্ষিতে গত মঙ্গলবার জগন্নাথপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন কান্দারগাঁও এলাকা পরির্দশনে যান। এসময় মুজিবনগর কান্দারগাঁও এলাকার লোকজন দাবী করেন, মুজিবনগর কান্দারগাঁও বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় যেহেতু রয়েছে সুতরাং সেখানেই সরকারিভাবে বিদ্যালয় করার জন্য। কিংবা মুজিবনগর, কান্দারগাঁও ও নোয়াগাঁও এর নামে নামকরণ করে স্কুল নির্মাণ করা যেতে পারে। এতে সবাই উপকৃত হবে। কিন্তুু গ্রামের আরেক পক্ষের দাবী, কান্দারগাঁও ও নোয়াগাঁও এলাকায় কোন বিদ্যালয় না থাকায় শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এলাকার শিশুরা। এজন্যে কান্দারগাঁও ও নোয়াগাঁও এলাকায় বিদ্যালয় স্থাপন করা জরুরি। এনিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।
মুজিবনগর কান্দারগাঁও এলাকার বাসিন্দা মুজিবনগর কান্দারগাঁও বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি জয়নাল আবেদীন জানান, গ্রামে বিদ্যালয় আছে, এই বিদ্যালয়কে সরকারিকরণের মাধ্যমে সবাই মিলেমিশে যদি পরিচালনা করেন তাহলে এলাকার শিক্ষার প্রসার ঘটবে। এই দাবীর পক্ষে এলাকার মানুষের।
অপর পক্ষের আব্দুস সালাম জানান,কান্দারগাঁও ও নোয়াগাঁও গ্রামে কোনো বিদ্যালয় না থাকায় শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে গ্রামের শিশুরা। এজন্যে আমরা গ্রামে বিদ্যালয় স্থাপনের দাবি জানিয়েছি।
জগন্নাথপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন জানান, আমাদের ইউএনও মহোদয়ের নির্দেশনায় আমি বিদ্যালয় নির্মাণের জন্য স্থান নির্ধারণের জন্য সরেজমিনে পরির্দশন করেছি। প্রাথমিকভাবে কান্দারগাঁও ও নোয়াগাঁও গ্রামের মাঝমাঝি এলাকায় বিদ্যালয় স্থাপনের জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহফুজুল আলম মাসুম বলেন, শিক্ষা বঞ্চিত কোমলমতি শিশুদের শিক্ষার আওতায় আনতে আমরা বিদ্যালয় স্থাপনে আগ্রহী হয়েছি। এলাকার সব শ্রেণী পেশার লোকজনের মতামতের ভিত্তিতে বিদ্যালয়ের জায়গা চূড়ান্ত করা হবে।