জগন্নাথপুরে শিলাবৃষ্টিতে বোরো ফসলের ক্ষতি

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরে দুইদফা শিলাবৃষ্টিতে বোরো ফসলের ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে কৃষকরা জানিয়েছে। ঝড়ের কারণে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বিদ্যুৎসংযোগ।
রবিবার বিকেল ৪টা থেকে ৪ টা ২০ মিনিটের মধ্যে উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া দুইদফা শিলাবৃষ্টির তান্ডবে বোরো ফসলের ক্ষতি হয়েছে।
স্থানীয় কৃষকরা জানান, বিকেলে দুইদফা শিলাবৃষ্টিতে জগন্নাথপুরের সর্ববৃহৎ নলুয়া হাওরের উত্তর, দক্ষিণ, ও পশ্চিম, অংশের এলাকায় আনুমানিক ২৫ শতাংশ জমির পাকা আধা পাকা ধানের ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া ঝড়ের জন্যও ফসলের মাঠ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
হাওরপাড়ে র রাজনগর এলাকার কৃষক শফিক মিয়া বলেন, আজ (গতকাল) ক্ষেতের পাকা ধান কাটার কথা ছিল। ধান কাটার শ্রমিকও ঠিক করা হয়েছিল। ভোর থেকে ব্যাপক বৃষ্টিপাতের জন্য ধান কাটতে পারিনি. বিকেলে দুই দফা শিলাবৃষ্টিতে জমির পাকা ধান ২৫ ভাগের মতো ক্ষতি হয়েছি। এবার তিনি ২৭ কেদার জমিতে বোরো ফসল আবাদ করেছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।
নলুয়া হাওরের ভুরাখালি গ্রামের কৃষক রিতু মিয়া বলেন, হাওরের দক্ষিণ অংশে ১৮ কেদার জমিতে বোরো ধান
চাষ করেছি। গতকালকের (রবিরার) শিলাবৃষ্টিতে ৬ কেদার জমির পাকা, আধা পাকা ধান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান বলেন, শিলাবৃষ্টিতে উপজেলার অন্যান্য হাওর থেকে বেশি ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে নলুয়া হাওরের উত্তর, দক্ষিণ ও পশ্চিম অংশে। ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ পাকা, আধা পাকা ধানের ক্ষতি হয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার বলেন, প্রাথমিকভাবে আমরা ধারণা করছি প্রায় ২ হেক্টর বোরো জমিনের পাকা ধান ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কাঁচা ধানের ক্ষতির পরিমাণ সঠিকভাবে এই মুহূর্তে বলা সম্ভব নয়।