জগন্নাথপুরে সংস্কৃতিকর্মী মানস রায় ও ইমু স্মরণে শোকসভা

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুর উপজেলা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মানস রঞ্জন রায় ও প্রয়াত তানভীর আহমদ ইমু স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শুক্রবার জগন্নাথপুর উপজেলা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর উদ্যোগে গুরু-শিষ্যের বিদায় শিরোনামে এক স্মরণ সভার আয়োজন করা হয়।
উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী জগন্নাথপুর উপজেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সতীশ গোস্বামীর সভাপতিত্বে ও উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সহ-সাধারণ সম্পাদক
আব্দুল মুকিত এর পরিচালনায় শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি শীলা রায়, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উদীচী সিলেট জেলা সংসদের সভাপতি কবি একেএম শেরাম, জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অভিজিৎ দাস জয়, সহ-সভাপতি প্রয়াত মানস রায়ের ছোটভাই মাধব রায়, জগন্নাথপুর প্রেসক্লাব সভাপতি শংকর রায়, কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন, জগন্নাথপুর প্রেসক্লাব যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অমিত দেব, শিক্ষক সালেহা পারভীন, সংস্কৃতিকর্মী জয়দ্বীপ সূত্রধর বীরেন্দ্র, শশী কান্ত গোপ, আকমল হোসেন ভূঁইয়া, সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম, সাজন মিয়া।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক দ্বিপক কুমার দেব।
স্মরণ সভায় কবিতা আবৃত্তি করেন উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর নাট্য বিভাগ সম্পাদক রনি রাজ, প্রয়াত মানস রায়ের মেয়ে শাশ্বতি রায়, নাতি অভিজিৎ রায় প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উদীচী সুনামগঞ্জ জেলা সভাপতি শীলা রায় বলেন, উদীচী হচ্ছে গণমানুষের সংগঠন। তাই আমাদেরকে গণমানুষের পক্ষে কাজ করতে হবে। প্রয়াত মানস রঞ্জন রায় গণমানুষের নেতা ছিলেন। আর তাঁর শিয্য উদীচীর কর্মী তানভীর আহমদ ইমু সমাজ বদলের কর্মী হিসেবে গণমানুষের মন জয় করেছিল বলেই গুরু-শিয্যের এই বিদায় অনুষ্ঠানে জগন্নাথপুরের সর্বশ্রেণী পেশার মানুষ তাঁদের কৃতকর্মের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে এখানে আজ মিলিত হয়েছেন।