জগন্নাথপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনকে ঘিরে উৎসাহ ও উত্তাপ

আলী আহমদ, জগন্নাথপুর
প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে আগামীকাল শনিবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জগন্নাথপুর উপজেলা ও পৌর শাখা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন। সম্মেলনকে ঘিরে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। পাশাপাশি এই সম্মেলন রাজনৈতিক মাঠে উত্তাপও ছড়াচ্ছে।
সম্মেলন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাড. মোল্লা মোহাম্মদ আবু কাওসার। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বেচ্ছাসবক লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বাবু সুব্রত পুরকায়স্থ। এছাড়াও স্বেচ্ছাসেবক লীগের জেলা নেতৃবন্দ উপস্থিত থাকবেন। সম্মেলনে স্থানীয় আওয়ামী লীগের কোন নেতাদের অতিথি করা হয়নি। শুনা যাচ্ছে উপজেলার আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ সম্মেলনে নাও যেতে পারেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু মিয়া জানান, স্বেচ্ছাসেবক লীগ আওয়ামী লীগের সহযোগি সংগঠন। শুনেছি সম্মেলন হচ্ছে। আমরা কোন দাওয়াত এখনো পাইনি ।
দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, ২০১২ সালে হাবিববুর রহমান হাবিবকে আহবায়ক ও কালী কুমার রায়কে সদস্য সচিব করে প্রথমবারের মতো জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ৫১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। ছালিক আহমদ কে আহবায়ক ও কবির আহমদকে সদস্য সচিব করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট জগন্নাথপুর পৌর শাখার আহবায়ক কমিটির অনুমোদন দেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। এই দুই কমিটির নেতৃবৃন্দ সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদের পুত্র আজিজুস সামাদ আজাদ ডন বলয়ের সর্মথক হিসেব পরিচিত। গত বছর সুনামগঞ্জে জেলা নেতৃবৃন্দ এ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে। ওই বছরের ৪ নভেম্বর স্থানীয় সংসদ সদস্য অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নানের সমর্থক হিসেবে পরিচিত উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক লিটন আহমদকে আহবায়ক ও মোতাহির আলীকে যুগ্ম আহবায়ক করে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটির অনুমোদন দেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সুয়েব আহমদ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমদ অপু। এই কমিটি গঠনের ১৫ দিনের মধ্যে আবারও জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ আজিজুস আসাদ ডন বলয়ের হাবিবুর রহমান হাবিবকে আহবায়ক করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির অনুমোদন দিয়ে ২০ জানুয়ারি সম্মেলন ঘোষণা করেন। সম্মেলন সফল করার লক্ষে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে আজিজুস সামাদ ডন গ্রুপের নেতৃবৃন্দ সাংগঠনিক সফর করে ধারবাহিকভাবে তৃণমূল নেতাকর্মীদের সংগঠিত করেন।
সম্মেলন প্রথমদিকে প্রধান অতিথি হিসেবে স্থানীয় সংসদ সদস্য অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নানের নাম শুনা গেলেও শেষ পর্যন্ত তিনি সম্মেলনে থাকবেন না বলে বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে। এতে করে মারাত্মকভাবে হতাশ হয়ে পড়েছেন এমএ মান্নান সমর্থকরা।
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম, এ মান্নান সমর্থক উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আহবায়ক লিটন আহমদ জানান, কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের নির্দেশে আমরা সম্মেলন অংশ নেব।
এদিকে সম্মেলন সফলের জন্য সব ধরনের প্রস্তুুতি গ্রহণ করা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রস্তুুতি কমিটি নেতৃবৃন্দ।
আজিজুস আজাদ ডন সমর্থক উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন প্রস্তুুতি কমিটির আহবায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব জানান, কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দের নির্দেশে সম্মেলনের সকল প্রস্তুুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে সম্মেলনের দাওয়াত কার্ড আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনসহ সবাইকে  দেওয়া হয়েছে।