জগন্নাথপুরে সড়ক রক্ষায় ১০ টন ওজনের অধিক যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ-রশিদপুর সড়কে ১০ টন ওজনের অধিক ট্রাক চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এছাড়াও সড়কে সর্তককরণ সাইনর্বোড স্থাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
সোমবার দুপুরে জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে নিরাপদ সড়ক ও যানজট মুক্ত পরিবেশ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে আয়োজিত নাগরিক সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সড়কে জনদুর্ভোগ লাঘবে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা’র দায়িত্বথাকা জগন্নাথপুরের উপজেলা কমিশনার (এসিল্যান্ড) ইয়াসির আরাফাতের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি সিদ্দিক আহমদ, জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু, জগন্নাথপুর প্রেসক্লাব সভাপতি শংকর রায়, উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইজি) গোলাম সারোয়ার, জগন্নাথপুর থানার এসআই সাত্তাহ, জগন্নাথপুর বাজার বণিক সমিতির
সভাপতি আফছর উদ্দিন ভূঁইয়া, বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাহির উদ্দিন, উপজেলা সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি নিজামুল করিম, জগন্নাথপুর-সিলেট মিনিবাস শ্রমিক সমিতির সভাপতি রব্বানী মিয়া, সাংবাদিক আব্দুল হাই, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সস্পাদক জহিরুল ইসলাম লাল, ব্যবসায়ী জামাল উদ্দিন তালুকদার, শিহাব উদ্দিন প্রমুখ।
জগন্নাথপুর উপজেলা সড়ক পরিবহণ মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি নিজামুল করিম বলেন, জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ-রশিদপুর সড়কজুড়ে খানাখন্দ, ভাঙাচোর, আর গর্তে ভরপুর। ফলে যানবাহন চলাচল অনুপযোগি হয়ে উঠেছে। দীর্ঘদিন ধরেই সংস্কারের দাবী জানিয়ে আসলেও কোন সুফল পাওয়া যায়নি। বাধ্য হয়েই সড়ক সংস্কারের দাবীতে গত ১৫ সেপ্টেম্বর অনিদিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংস্কারের আশ্বাস দেয়া হলে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে ২৩ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কাজ শুরু না হলেও ফের ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে ধর্মঘটের ঘোষণা দেয়া হয়। তিনি বলেন, বর্তমানে সড়কে অস্থায়ীভাবে কাজ শুরু হওয়ায় ২৪ সেপ্টেম্বর ধর্মঘট হচ্ছে না।
জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) গোলাম সারোয়ার বলেন, সড়কের জগন্নাথপুর ও বিশ্বনাথ অংশে অস্থায়ী মেরামত চলছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা এসিল্যান্ড ইয়াসির আরাফাত জানান, সড়কে জনসাধারণে দুর্ভোগ লাঘবে এবং সড়ক রক্ষায় নাগরিকদের মতামতের প্রেক্ষিতে ১০ টন ওজনের অধিক ট্রাক কিংবা পণ্যবাহি ভারী যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। আশা করছি, আজ মঙ্গলবার থেকে এর বাস্তবায়ন শুরু হবে। সড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে পয়েন্টে সাইবোর্ড স্থাপন করা হবে।