জরিমানা বাতিলের দাবিতে শিক্ষার্থীদের সংবাদ সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার
জরিমানা বাতিল ও রেজিস্ট্রেশন কার্ড ইস্যু করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। রবিবার বিকাল সাড়ে ৩টায় দৈনিক সুনামগঞ্জের খবর’র হলরুমে ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে দ্বৈত ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের আয়োজনে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন দ্বিপাল ভট্টাচার্য্য।
লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, গত ২০ মে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক বিজ্ঞপ্তি জারির ফলে সারাদেশের হাজার হাজার শিক্ষার্থীদের জীবন হুমকির মধ্যে পড়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় দ্বৈত ভর্তি সম্পূর্ণ আইন বা নিয়ম বর্হিভূত। গত বছর যারা ভর্তিকৃত বিষয়ে পরীক্ষায় অবতীর্ণ হয়ে তা বাতিল না করে পুনরায় নতুন বিষয়ে ভর্তি হয়েছে তা কিছুতেই গ্রহণযোগ্য নয়। এর শাস্তি হিসেবে প্রথম বর্ষে ভর্তি বাতিলের জরিমানা ১০ হাজার (যারা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে) এবং যারা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেনি তাদের জরিমানা ৭ হাজার ৫শত। এর বাইবে ভর্তি বাতিল ফি ৭শত টাকা উভয়কেই দিতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে ৪দফা দাবি তুলে ধরা হয়। দাবি সমূহ হলো-
১.জরিমানা সম্পূর্ণরূপে বাতিল করতে হবে। ফরম পূরণের শেষ তারিখ কলেজ খোলার পর ১৫ দিন বাড়াতে হবে এবং এই সময়ের মধ্যে ভূক্তভোগী শিক্ষার্থীদের সকলের রেজিস্ট্রেশন কার্ড প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে হবে।
২. ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি স্বয়ংক্রিয় ভাবে বাতিল করে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি বহাল রাখতে হবে।
৩.দ্বৈত ভর্তির ক্ষেত্রে প্রথম ভর্তির সময় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রদানকৃত ভর্তি ফি শিক্ষার্থীদের ফেরত দিতে হবে।
৪.কলেজ এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অসাধু কর্মকর্তা কর্মচারীদের চিহ্নিত করে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।
এসময় দাবি পূরণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে ১০ দিনের আলটিমেটাম দেন শিক্ষার্থীরা। এই সময়ের মধ্যে জরিমানা বাতিলসহ অন্যান্য বিষয় সুরাহা না হলে ধর্মঘট, আমরণ অনশন, হাইকোর্টে রিটসহ কঠোর কর্মসূচির পালন করা হবে বলেও জানানো হয়।
সুকান্ত দত্তের সভাপতিত্বে এবং আসাদ মনি’র সঞ্চালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষার্থী শাকিব আহমেদ, শা.জামান, সৌরভ, অনিক মিয়া, মামুনুর রশীদসহ ভূক্তভোগী শিক্ষার্থীরা।