জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মিশুক ও ট্যাক্সিকার ড্রাইভার্স ইউনিয়নের নির্বাচন ১৯ মার্চ

স্টাফ রিপোর্টার
জেলা সিএনজি চালিত অটো-রিক্সা, মিশুক ও ট্যাক্সিকার ড্রাইভার্স ইউনিয়নের নির্বাচন আগামী ১৯ মার্চ। ৩ বছর মেয়াদী কমিটির এই নির্বাচনে ভোটারদের মধ্যে উৎসবের আমেজ লক্ষ্য করা গেছে। সাংগঠনিক সম্পাদক ছাড়া অন্যান্য পদে ৩১ জন প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন । গুরুত্বপূর্ণ সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মো. আলী হোসেন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। জামতলার জান্নাহ্ কমিউনিটি সেন্টারে সকাল ৯ টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে।
জেলা সিএনজি চালিত অটো- রিক্সা, মিশুক ও ট্যাক্সিকার ড্রাইভার্স ইউনিয়নের নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে গেল ফেব্রুয়ারির ২ তারিখ। চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয় ১৬ ফেব্রুয়ারি। প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করেন ২২ ফেব্রুয়ারি। বৈধ মনোনীত প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয় ২৫ ফেব্রুয়ারি।
সংশ্লিষ্ট নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, সভাপতি পদে ৩ জন, সহ সভাপতি পদে ৪ জন, সাধারণ সম্পাদক পদে ২ জন, সহ সাধারণ সম্পাদক পদে ৪ জন, কোষাধ্যক্ষ পদে ২ জন এবং সদস্য পদে ১৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দেন। তাদের যাচাই বাছাই শেষে বৈধ প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে কমিশন।
প্রার্থীদের ২৭ ফেব্রুয়ারি প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়। সভাপতি পদে মো. আসকর আলী, মো. ছুরত আলী ও জাহাঙ্গীর আলম লড়বেন যথাক্রমে চাকা, ছাতা ও বাইসাইকেল প্রতীকে। সহ সভাপতি পদে মো. জামাল উদ্দীন, মো. জহিরুল ইসলাম, মো. বাহার মিয়া ও মো. সুন্দর আলী লড়বেন যথাক্রমে টিউবওয়েল, চেয়ার, আনারস ও বাঘ প্রতীকে। সাধারণ সম্পাদক মো. আল আমীন কালা ও মো. হারুন রশীদ লড়বেন যথাক্রমে হাত পাখা ও হরিণ পদ নিয়ে। সহ সাধারণ সম্পাদক আপেল মাহমুদ, উত্তম ধর, জামাল উদ্দিন ও মোসাদ্দেক হোসেন লড়বেন যথাক্রমে মোবাইল ফোন, মটর সাইকেল, গোলাপ ফুল ও কাপ প্লেট প্রতীক নিয়ে। কোষাধ্যক্ষ পদে মো. গিয়াস উদ্দিন ও শাহ সুমন ফারুক লড়বেন যথাক্রমে ইলিশ ও মোরগ প্রতীক নিয়ে।
সদস্য পদে আব্দুল ছত্তার, মো. আব্দুল হেকিম, মো. আরশ আলী, ইসলাম উদ্দিন, মো. এনামুল হক, মো. এশাদ মিয়া, মো. জগদীর আলী, মো. জুয়েল মিয়া, মো, নাজিম উদ্দিন, মো. নজরুল ইসলাম, মোজাহিদ আলী, মিজানুর রহমান, মো. মোবারক মিয়া, মো. লাল মিয়া, মো. শহীদুল ইসলাম ও মো. সায়েম মিয়া লড়বেন যথাক্রমে ঘোড়া, দোয়েল পাখি, তীর, সিলিং ফ্যান, হাঁস, মোটর গাড়ি, ফুটবল, আম, প্রজাপতি, মোমবাতি, কলস, পানপাতা, মই, হাতি, রিক্সা ও তালা-চাবি প্রতীক নিয়ে।
প্রার্থীরা শহরে প্রচারণা চালাছেন। শহরের বিভিন্ন জায়গায় পোস্টার লক্ষ্য করা গেছে।
ভোটার হোসেন বলেন, যারা নেতৃত্ব দিতে পারবে তাদের আমরা ভোট দিয়ে বিজয়ী করবো।
সদস্য প্রার্থী আরশ আলী বলেন, যারা ভোটার আছেন তাদের বিপদে পাশে থাকার জন্য আমি নির্বাচন করছি। আমি নির্বাচনে জয়ী হলে কল্যাণ রিসিট ৩০ টাকা থেকে ১০ টাকা করতে ফোরামে কথা বলবো। এছাড়া এখন পর্যন্ত নির্বাচনে প্রচারণা সুষ্ঠু ভাবে পরিচালনা করতে পারছি।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার রওনক আহমদ বলেন, নির্বাচনের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুতি আমাদের শেষ। এখনো পর্যন্ত ভোটার ও প্রার্থীদের কাছ থেকে কোনো রকমের অভিযোগ আমরা পাইনি।