ঝাড়ফুঁক-তাবিজ থেকে বেরিয়ে আসতে হবে-এমএ মান্নান

বিশেষ প্রতিনিধি
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, ‘ঝাড়ফুঁক-তাবিজ থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। নিজেকে উদার, গণতান্ত্রিক, বিজ্ঞানমনস্ক করতে হবে।’
শনিবার বিকালে সুনামগঞ্জের শহীদ আবুল হোসেন মিলনায়তনে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ, সুনামগঞ্জ’এর উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী এসময় বলেন, ‘একুশ শতকের উপযোগী, বিজ্ঞানমনস্ক জাতি ও আধুনিক বাংলাদেশ গড়তে আমাদের প্রচুর কাজ করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এজন্য শিক্ষায় বিনিয়োগ বেশি করতে আগ্রহী। অবকাঠামো উন্নয়নেও মনোযোগী তিনি।’
তিনি বলেন, বিগত সময়ে আওয়ামী লীগ সরকার ১২ টি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণ প্রকল্প হাতে নিয়েছিল। বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এসে এসব প্রকল্প বন্ধ করে দেয়। তারা দেশকে পেছনের দিকে নিয়ে যেতে চেয়েছিল। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কাজ শুরু করতে চান। তিনি বলেন, অমানিশা শেষের প্রহরে আছে। আমরা সেটি অতিক্রম করবো।
তিনি সুনামগঞ্জে হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে, বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ, টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট, নার্সিং কলেজ’এর কাজ শুরু হয়েছে উল্লেখ করে বলেন, ছাতক-সুনামগঞ্জ রেললাইন, সুনামগঞ্জ-ময়মনসিংহ সড়ক ও রেল লাইনসহ অসংখ্য প্রকল্প পাইপ লাইনে রয়েছে।
সুনামগঞ্জের উন্নয়ন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি সুনামগঞ্জের ছেলে, এটিই আমার বড় পরিচয়, আমার বাবা-দাদা সুনামগঞ্জেই কাটিয়েছেন, কেউ যদি মনে করেন মান্নান সাব সব নিয়ে যাচ্ছে শান্তিগঞ্জে, এটা ভাবা ঠিক হবে না। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কাজ করি। কেউ চাইলেই সুনামগঞ্জ শহরের কোন মহল্লার ভেতরে একটি বিশ্ববিদ্যালয় করতে পারবে না। সম্ভব হবে না। বিশাল আয়তনের ভূমি প্রয়োজন। সকলের সুবিধা হয় এমন স্থানেই করতে হবে। আমাকে সন্দেহ্ করবেন না, আমি আঞ্চলিকতায় ভোগি না। দেশের বড় বড় বিশ্ববিদ্যালয়গুলো শহর থেকে দূরেই হয়েছে।’
তিনি উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, অন্যের পরিচয়ে নয়, নিজের পরিচয়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে হবে। মাতৃভূমিকে ভালবাসতে হবে।
সংগঠনের উপদেষ্টা বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু’র সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সদস্য মাহবুবুর রহমান তাহমিদ’এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ্, সিভিল সার্জন ডা. আশুতোষ দাস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শরিফুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়াতুননবী, প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ফরহাদ শাহী আফিন্দি, প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবু সাদাত মোহাম্মদ সায়েম, চট্টগ্রাম প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আশহার ইনতেয়াম তাহবির।
পরে বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২৪ জন নবীন শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা ক্রেস্ট তুলে দেন অতিথিরা।
সবশেষে সংগঠনের উপদেষ্টা বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু সংগঠনের নতুন কমিটির সভাপতি হিসাবে চট্টগ্রাম প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আশফাক জাহান তাঞ্জিম ও প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বিধায়ক রায়কে সাধারণ সম্পাদক করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের নতুন কমিটি ঘোষণা দেন।
এরআগে মন্ত্রী দক্ষিণ সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ মাঠে পূর্ব পাগলা ও দরগাপাশা ইউনিয়ন ফুটবল টিমের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ’এর উদ্বোধন করেন। সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে ‘রিদম অব মিউজিক ফ্যামেলি’র সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী।
দেবাশিষ তালুকদার শুভ্র’র সঞ্চালনায় এই অনুষ্ঠানে অতিথি’র বক্তব্য দেন- পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ্ এমপি, সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শামছুন নাহার শাহানা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শরিফুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়াতুন নবী, জেলা পরিষদ সদস্য ফৌজিআরা শাম্মি প্রমুখ ।
পরে বিপুল সংখ্যক দর্শকের উপস্থিতিতে এখানে দীর্ঘক্ষণ চলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।