ডা. প্রিয়াংকার অপমৃত্যু দায়ী ব্যক্তিদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার
সিলেটের পার্কভিউ হাসপাতাল ও কলেজের প্রভাষক ডা. প্রিয়াংকা তালুকদার শান্তার অপমৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্ত ও দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সুনামগঞ্জে বিভিন্ন সংগঠন মানববন্ধন করেছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টা থেকে সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত শহরের ট্রাফিক পয়েন্টে এই মানববন্ধন হয়। বেলা ১১ টায় মানবাধিকার কমিশন, সুনামগঞ্জ জেলা শাখা এবং পরে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট সুনামগঞ্জ জেলা শাখা মানববন্ধন করে। মানববন্ধনে নানা শ্রেণি পেশার লোকজন অংশ নেন। স্বজনদের সাথে দাঁড়িয়ে মানববন্ধনে প্রতিবাদে অংশ নেয় এবং মায়ের হত্যাকারীদের বিচার চায় ডা. শান্তার ৩ বছর বয়সী ছেলে কাব্যও।
সাইফুল ইসলাম ছদরুলের সঞ্চালনায় মানবাধিকার কমিশনের মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য ফৌজি আরা বেগম শাম্মী, জসিম উদ্দিন দিলীপ, কলি তালুকদার আরতি, আশরাফ হোসেন, মহিবুর রহমান মহি, জনি রায় প্রমুখ।
সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট’র মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- অলক ঘোষ চৌধুরী, মঞ্জু তালুকদার, দেবদাস চৌধুরী রঞ্জন, তুলিকা ঘোষ চৌধুরী, জাহাঙ্গীর আলম, সন্তোষ কুমার চন্দ, অনিশ তালুকদার বাপ্পু, বিন্দু তালুকদার, বিধান চন্দ্র বণিক, সোহেল রানা, দেবাশীষ তালুকদার শুভ্র, সামির পল্লব প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেছেন, ‘ডা. প্রিয়াংকাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে অথবা তাকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করা হয়েছে। বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার অপচেষ্টা চলেছে।’ প্রিয়াংকার পরিবার বিত্তশালী হওয়ায়, তদন্ত কার্যক্রম নানাভাবে প্রভাবিত করার অপচেষ্টা করতে পারে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেন বক্তারা।
গত রোববার সকালে সিলেট নগরীর পশ্চিম পাঠানটুলাস্থ পল্লবী সি বøকের ২৫ নম্বর বাসা থেকে জালালাবাদ থানা পুলিশ ডা. প্রিয়াংকা তালুকদার’এর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ প্রিয়াংকার স্বামী দিবাকর দেব, শ্বশুর সুভাস দেব ও শাশুড়ি রতœা দাসকে রোববারই গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে ৭ দিনের রিমান্ড চায়। আদালত সোমবার এদের ৩ জনকেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
জালালাবাদ থানার ওসি হারুনুর রশিদ বুধবার বিকালে জানান, মঙ্গলবার থেকেই প্রিয়াংকার শ্বশুর, শাশুড়ি ও জামাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে তদন্ত কার্যক্রম অব্যাহত আছে।