তাহিরপুরে ধর্ষক নাজু গ্রেফতার

তাহিরপুর প্রতিনিধি
তাহিরপুরে এতিম কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক নাজু মিয়াকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার মধ্য রাতে তাহিরপুর সদরে তার মামার বাড়ী থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। এইদিকে ধর্ষিত এতিম কিশোরীকে মঙ্গলবার সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন কিশোরী এখন শঙ্কামুক্ত,
তার চিকিৎসা চলছে। বুধবার সন্ধায় কিশোরীর মা বাদি হয়ে তাহিরপুর থানায় মামলার প্রস্ততি নিচ্ছেন বলে তাহিরপুর থানা পুলিশ নিশ্চিত করেছেন।
জানা যায়, গত রবিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়নের নালেরবন্ধ গ্রামের আলি নূরের বখাটে ছেলে ধর্ষক নাজু ফোন করে এতিম কিশোরীকে বাড়ি থেকে নিয়ে আসে এবং বিয়ে করার আশ^াস দিয়ে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে চলে যায়। বিষয়টি ধর্ষক নাজু মিয়ার মা-বাবাকে জানালে তারা ক্ষিপÍ হয়ে আবার ওই কিশোরকে মারপিট করে ধান ক্ষেতে ফেলে রাখে।
সোমবার সকালে গ্রামবাসী পুলিশকে বিষয়টি জানালে তাহিরপুর থানার এস আই সাইফুর রহমান ও এস আই আমির হোসেন বিকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে কিশোরীকে উদ্ধার করে তার মায়ের কাছে রেখে যান। পরে গ্রামবাসী চাঁদা তোলে মঙ্গলবার দুপুরে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ঘটনার পর থেকেই ধর্ষকের পরিবার বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার জন্য চেষ্টা চালায় এবং কিশোরীর মাকে মামলা না কারার জন্য হুমকি দিতে থাকে।
ভিকটিমের মা বলেন,‘ ধর্ষক নাজু সব সময় তার মেয়েকে রাস্তাঘাটে বিরক্ত করত এবং হুমকি দিত। তিনি ধর্ষকের উপযুক্ত বিচার ছেয়েছেন।
পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান বলেন,‘তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিয়ের আশ^াস দিয়ে এতিম কিশোরীকে নাজু মিয়া ধর্ষণ করেছে। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে। প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’



আরো খবর