দিরাইয়ে উত্তরাধিকার সনদ চাইতে গিয়ে মেয়র কর্তৃক লাঞ্ছিত

স্টাফ রিপোর্টার
উত্তরাধিকার সনদ চাইতে গিয়ে দিরাই পৌরসভার মেয়র কর্তৃক লাঞ্ছিত হয়েছেন পৌরসভার দাউদপুর এলাকার একসময়ের বাসিন্দা শোভা চক্রবর্তী’র ছেলে স্বপন চক্রবর্তী। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে স্বপন চক্রবর্তী বুধবার জেলা প্রশাসকের নিকট আবেদন করেছেন।
জেলা প্রশাসকের নিকট করা আবেদনে স্বপন চক্রবর্তী উল্লেখ করেন, মায়ের পৈত্রিক সম্পদ নাম খারিজ করার জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসে উত্তরাধিকারী সনদের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেওয়ায় তিনি দিরাই পৌরসভায় যান। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর বিশ্বজিৎ রায়’এর দেওয়া সনদের কপি নিয়ে মেয়র মোশারফ মিয়া’র সাথে গত সোমবার (পহেলা জুলাই) তাঁর ফস কক্ষে দেখা করেন।
মোশারফ মিয়ার কাছে তিনি উত্তরাধিকার সনদ চাইলে এবং পৌর কাউন্সিলর বিশ্বজিৎ রায় সনদ দিয়েছেন জানালে মেয়র ক্ষুব্ধ হন। পৌর কাউন্সিলর বিশ্বজিৎ কে কটাক্ষ করাসহ তিনি স্বপন চক্রবর্তীকে গালিগালাজ শুরু করেন। গালি গালাজের সময় তিনি সাম্প্রদায়িক শব্দচয়নও করেন। এক পর্যায়ে তিনি হুমকি দিয়ে বলেন ‘তোকে আবার দিরাইয়ে দেখলে বস্তায় ভরে নদীতে ফেলে দেব।’
এঘটনার পর স্বপন চক্রবর্তী মনে করছেন, মেয়রের ভূমিকার কারণে তিনি তার ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত হবেন।
স্বপন চক্রবর্তী জানান, দিরাই পৌরসভায় থাকা তার মায়ের ৫৮ শতক ভূমি আইনানুযায়ী তিনিই মালিক। আদালতের রায়ও রয়েছে তার (স্বপন চক্রবর্তীর) পক্ষে। অথচ. একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হয়ে অন্যায়ভাবে দখলদারের পক্ষে কথা বলছেন দিরাই পৌরসভার মেয়র মোশারফ মিয়া।
দিরাই পৌরসভার মেয়র মোশারফ মিয়া এ প্রসঙ্গে জানালেন, কিছুদিন আগে আমার কাছে একজন এসেছিলেন আরেকজনের ওয়ারিশান সার্টিফিকেট নেয়ার জন্য। কিন্তু যার সম্পত্তি তিনি ইন্ডিয়ার নাগরিক। আমি তাকে বলেছি ওয়ারিশান সার্টিফিকেট দেওয়া যাবে না। এতে আইনগত সমস্যা আছে। লাঞ্ছিত করার বিষয়টি অস্বীকার করেন তিনি।