দিরাইয়ে জীবন দাস হত্যাকাণ্ড, আসামী মনির গ্রেফতার

দিরাই প্রতিনিধি
দিরাইয়ের বহুল আলোচিত জীবন দাস হত্যা মামলার অন্যতম আসামী মনির কে গ্রেফতার করেছে দিরাই থানা পুলিশ। বুধবার আদালতে ঘাতক মনির জীবন াদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্ত এ্এস আই ইসমাইল আলী। মনির জীবন দাস হত্যা মামলার প্রধান আসামী রাজনের অন্যতম সহযোগী ও উপজেলার ধাইপুর গ্রামের সামছুৃ মিয়ার ছেলে।
দিরাই থানার ওসি কে.এম নজরুল জানান, এস.আই ইসমাইল সোমবার শ্রীমঙ্গল থানার মির্জাপুর বাজার থেকে মনিরকে গ্রেফতার করে দিরাই থানায় নিয়ে আসেন। জীবনদাস হত্যাকা-ের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর বুধবার সকালে ঘাতক মনিরকে আদালতে প্রেরণ করা হয়।
পুলিশ জানায়, নারী সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরেই রাজন তার সহযোগী মনিরসহ তার বাহিনীর সহযোগীতায় বিগত ২৬ মে গ্রামের বাড়ি বোয়ালিয়া বাজার থেকে ডেকে নিয়ে জীবন দাসকে খুন করে। ২ জুন বিবিয়ানা নদী থেকে জীবন দাসের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। জীবন দাসের লাশ পাওয়ার দুই দিন পর ৪ জুন তার বড় ভাই লিটন দাস বাদী হয়ে কুলঞ্জ গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে রাজন মিয়াসহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮জনকে আসামী করে দিরাই থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর থেকেই ঘাতক রাজন ও মনির সহ ৭/৮জন এলাকা ছেড়ে গা ঢাকা দেয়। তবে জীবন দাস খুনের সাথে জড়িত প্রধান আসামী রাজনসহ অন্যান্য আসামীরা পলাতক রয়েছে।