দেখার হাওরে আরও অপ্রয়োজনীয় বাঁধ

স্টাফ রিপোর্টার
দেখার হাওরের সদর উপজেলার পর এবার দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাঁও ইউনিয়নের অর্ন্তগত একটি অপ্রয়োজনীয় বাঁধ নির্মাণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
স্থানীয় এলাকাবাসী প্রথমে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত আবেদন করে কোন প্রতিকার না পেয়ে গতকাল সোমবার জেলা প্রশাসকের কাছে ওই প্রকল্পের স্থান পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছেন।
এলাকার হাজারীগাঁও, ধনপুর, গনারগাঁও ও মান্নারগাঁওবাসীর পক্ষে লিখিত আবেদনে সুপারিশ করেছেন মান্নারগাঁও ইউপির ৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. তাজ উদ্দিন।
সোমবার জেলা প্রশাসকের কাছে করা আবেদনে এলাকাবাসী উল্লেখ করেছেন, দেখার হাওরের দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাঁও ইউনিয়নে যে বাঁধ (পিআইসি নং-ডি-২৮/১, বরাদ্দ ১০ লাখ টাকা) দেয়া হচ্ছে তা কৃষকদের মতামত ছাড়াই হচ্ছে। যেখানে বাঁধ দেয়া হচ্ছে সেখানে বোরো ফসলরক্ষায় কোন কাজ হবেনা, উল্টো আমন জমিনে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে ডুবায় পরিণত হবে। এতে কৃষকরা চরম ক্ষতির সন্মুখিন হবেন।
তাই এই বাঁধ নির্মাণের স্থান পরিবর্তন করে মান্নারগাঁও কালার পয়েন্ট হতে       
নদীর পাড়ের বেরিবাঁধ পুন সংস্কার হলে আমন জমির ধান রক্ষা হবে এবং বোরো জমির ধানও আগাম বন্যার হাত থেকে রক্ষা পাবে।
তবে দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী মহুয়া মমতাজ বলেন,‘ এই প্রকল্পটি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতাধীন। আমাদের দায়িত্ব হল-কাজ সঠিকভাবে হচ্ছে কিনা তা দেখার। প্রকল্প বাতিলের জন্য একটি লিখিত আবেদন পেয়েছি। কিছু মানুষ বলছে বাঁধের প্রয়োজন নেই, আবার কিছু মানুষ বলছে প্রয়োজন আছে। তবে এই প্রকল্পের বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষই কেবল প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারেন।’