দোয়ারায় ৩ মে.টন সরকারি চাল জব্দ

বিশেষ প্রতিনিধি ও আশিক মিয়া
দোয়ারাবাজারে পাচারকালে ৩ মে.টন সরকারি চাল জব্দ করেছে পুলিশ। দুটি ট্রাকে করে এই চাল খাদ্য গোদাম থেকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। ট্রাকের চালকদের আটক করা হয়েছে। চালকরা বলেছে,‘তারা এই ট্রাকভর্তি চাল ছাতকের চাল ব্যবসায়ী মকবুল চৌধুরীর গোদামে নিয়ে যাচ্ছিল।’ অন্যদিকে দোয়ারাবাজার খাদ্যগোদাম কর্মকর্তা অলক বৈষ্ণব বলেছেন, ‘এই চাল উপজেলার নরসিংহ্পুর ইউপি চেয়ারম্যানের। তিনি গোদাম থেকে ট্রাকে করে পাঠিয়েছেন তাঁর ইউনিয়নে।’ সোমবার দুপুর ২ টায় দোয়ারাবাজার উপজেলার ছাতক-দোয়ারা সড়কের নৈনগাঁও গ্রামের পাশের সড়ক থেকে আটক করে জব্দ হয় এই সরকারী চাল।
পুলিশ জানায়, দুপুরে নৈনগাঁও গ্রামের পাশে সরকারী চালভর্তি দুটি ট্রাক রয়েছে দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ওখানে গিয়ে চালকদের সঙ্গে কথা বলে সন্দেহ হওয়ায় দুইটি ট্রাকই আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এসময় ট্রাক চালক রিপন মিয়া (২০), পিতা ফজর আলী, বাড়ী নানশ্রি, ছাতক, এবং সাহেদ আলী, পিতা ইদ্রিছ আলী, আখিলপুর, ছাতককে আটক করেছে পুলিশ।
দোয়ারাবাজার থানার সাবইন্সপেক্টর ফরিদ মিয়া জানান,‘চাল আটকের পর চালক কোন কাগজ দেখাতে পারেননি, চালকের কথা বার্তায়ও সন্দেহ হচ্ছিল, এজন্য চালের ট্রাক থানায় নিয়ে এসে জব্দ করা হয়েছে।’
চাল আটকের সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত লোকজন এ প্রতিবেদককে বললেন, ‘চাল আটকের পর চালক বলেছে এই চাল ছাতকের চাল ব্যবসায়ী মকবুল চৌধুরী’র গোডাউনে নিয়ে যাওয়া হবে।’
দোয়ারাবাজারের ওসি এলএসডি অলক বোস বললেন, ‘এই চাল নরসিংহ্পুর ইউপি চেয়ারম্যান নূর উদ্দিন উত্তোলন  করে তাঁর ইউনিয়নে পাঠাচ্ছিলেন। ইউপি চেয়ারম্যান নূর উদ্দিনও একই মন্তব্য করলেন।’
কিন্তু ইউপি চেয়ারম্যান নূর উদ্দিনের ভাড়া করা অন্য এক ট্রাক চালক আলী হোসেন বললেন, ‘আমার হেফাজতে ৫ টি ট্রাক ছিল, এই ট্রাকগুলো মাল নিয়ে নরসিংহপুর ইউনিয়ন পরিষদে এসেছে। আটক দুটি ট্রাক কার মালামাল এনেছে আমার জানা নেই।’
ছাতকের চাল ব্যবসায়ী মকবুল চৌধুরী বললেন,‘আমার কোন মালামাল দোয়ারাবাজার থেকে আসার কথা নয়।’
ছাতক থানার ওসি সুশিল রঞ্জন দাস বিকাল সাড়ে ৫ টায় জানান, ‘দুই ট্রাকে ৫০ কেজির ১২০ বস্তা চাল রয়েছে, ট্রাকের চালকরা কোথায় চাল নিয়ে যাবে, কার চাল বলতে পারেনি, কোন কাগজপত্র এখন পর্যন্ত (বিকাল সাড়ে ৫ টা) দেখাতে পারে নি, এজন্য দুই চালককেই থানা হাজতে রাখা হয়েছে, চালও জব্দ করা হয়েছে।



আরো খবর