দড়ি টানা ড্রামের ভেলায় নদী পারাপার

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি
দড়ি টানা ভেলা। ভেলাটি আবার ৪টি ড্রাম দিয়ে তৈরি করা। খেয়াঘাটে নৌকায় মাঝি থাকেন না। নদী বরাবর টাঙানো হয়েছে দড়ি। সেই দড়ি টেনেই পারাপার হয়ে আসছে মানুষ। কেউ নদী পাড় হতে চাইলে, অথবা কোন পণ্য এক পাড় থেকে অন্য পাড়ে নিতে চাইলে দড়িটানা ড্রামের ভেলাই ভরসা। এটি দিয়ে প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে নদী পাড় হয়ে শিক্ষার্থীদের স্কুল কলেজে যেতে হয়। কৃষি পণ্য আনা নেওয়া করতে হয় কৃষকদের। ব্যবসায়ীদেরও মালামাল পারাপার করতে হয়। এখানকার লোকজনকে এই দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে যুগ যুগ ধরে। এভাবেই দুই পাড়ের ৭টি গ্রামের মানুষ পাড়ি দেয় আনোয়ারা নদী।
জানা যায়, জামালগঞ্জ উপজেলার ভীমখালী ইউনিয়নের আনোয়ারা নদীর এক পাড়ে মাহমুদপুর অন্য পাড়ে মলিনগর গ্রাম। দুই গ্রামের মামুষের দীর্ঘদিনের দাবি এখানে একটি সেতু নির্মাণের। সেতু নির্মিত হলে নিরবচ্ছিন্ন সড়ক যোগাযোগ নেটওয়ার্ক স্থাপন হবে। তখন মানুষ খেয়া পারাপারের বিড়ম্বনা থেকে মুক্তি পাবে। পাশাপাশি যাতায়াত-সুবিধার কারণে খেতের উৎপাদিত ফসল ঘরে তোলা ও বিক্রিতে ন্যায্য দাম পাবেন কৃষক। ব্যবসা-বাণিজ্যেরও প্রসার ঘটবে। শিক্ষাক্ষেত্রে নবদিগন্তের সূচনা হবে।
মলিনগর গ্রামের নুরুল আমিন, সিরাজ মিয়া জানান, আনোয়ারা নদীতে একটি ব্রিজ নির্মাণ হলে জামালগঞ্জ-সুনামগঞ্জ সড়ক যোগাযোগের ক্ষেত্রে বিকল্প ব্যবস্থা সৃষ্টি হবে। স্কুল কলেজ পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীদের ঝুঁকি নিয়ে নদী পার হতে হবে না। নদীর ২ পাড়ের ৭টি গ্রামের কয়েক হাজার লোকের নোয়াগাঁও বাজার থেকে জামালগঞ্জে আসতে অর্ধেক সময় কমে যাবে।
এ ব্যাপারে জামালগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান মো. আখতারুজ্জামান জানান, দুই পাশের গ্রামের মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে সাময়িক পারাপারের জন্য ড্রাম দিয়ে ভেলা তৈরী করে দেওয়া হয়েছে। আগামীতে এই আনোয়ারা নদীতে যদি একটি ব্রীজ দেওয়া হয় তাহলে নোয়াগাঁও থেকে লাল বাজার হয়ে জামালগঞ্জ যেতে সময় ও অর্থ কম লাগবে। আমি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছি যাতে দ্রুত আনোয়ারা নদীতে একটি ব্রীজ নির্মাণ করে এলাকাবাসীর যোগাযোগের সুবিধা হয়।
জামালগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) আব্দুল মালেক মিয়া জানান, এলজিইডির আওতায় অনুর্ধ্ব একশত মিটার ব্রিজ প্রকল্প প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়েছে। আশা করি দ্রুততম সময়ের মাঝে প্রস্তাবটি পাস হয়ে আসবে। প্রস্তাবটি অনুমোদন হয়ে আসলে টেন্ডার প্রক্রিয়ায় যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কাজ শুরু হবে।