ধর্মপাশায় অভিযুক্ত মিল মালিককে কারণ দর্শানোর নোটিশ

ধর্মপাশা প্রতিনিধি
ধর্মপাশা সরকারি চাল খাদ্যগুদামে সরবরাহের চেষ্টায় অভিযুক্ত মেসার্স ফারুকী অটো রাইচ মিল মালিক বিভু রায়কে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। খাদ্যগুদামে চাল সরবরাহের জন্য ওই মিল মালিকের সাথে খাদ্য অধিদপ্তরের সম্পাদিত চুক্তি কেন বাতিল করা হবে না তা দুই কার্যদিবসের মধ্যে জবাব চেয়ে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মঙ্গলবার বিকেলে মিল মালিককে এ নোটিশ দেন।
গত সোমবার সকাল আটটার দিকে উপজেলার হাসপাতাল রোডস্থ ত্রিমূখী মোড় থেকে ৪০০ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় ট্রাক চালক আবুল কাসেম ও চালকের সহযোগী নূরুল আমিনকে আটক করা হয়। ওই দিন সন্ধ্যায় ধর্মপাশা থানার এসআই জাহাঙ্গীর হোসাইন বাদী হয়ে ট্রাক চালক, চালকের সহযোগী ও মিল মালিকসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামী করে থানায় মামলা করেন। এদিকে বুধবার সকালে চালক ও চালকের সহযোগীকে ধর্মপাশা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নেওয়া হলে আদালতের বিচারিক চালকের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে জানিয়েছেন মামলার বাদী এসআই জাহাঙ্গীর হোসাইন।
গত রবিবার গভীর রাতে ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার গজহরপুর এলাকার মেসার্স মা অটো রাইস মিল থেকে ওই মালবাহী ট্রাক ধর্মপাশা উপজেলার মধ্যনগরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। সোমবার সকাল আটটার দিকে ট্রাকটি ধর্মপাশা উপজেলা সদরের হাসপাতাল রোডস্থ ত্রিমূখী মোড়ে পৌঁছালে পুলিশ ট্রাক থেকে খাদ্য অধিদপ্তরের সিলযুক্ত ৪০০ বস্তা চাল উদ্ধার করে। আটকের পর ট্রাক চালক জানায় এসব চাল মধ্যনগরের মেসার্স ফারুকী অটো রাইস মিল মালিকের।
উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ সেলিম হায়দার বলেন, ‘নিজস্ব মিলে উৎপাদিত চাল খাদ্যগুদামে সরবরাহের কথা থাকলেও মেসার্স ফারুকী অটো রাইস মিলের মালিক ‘সংগ্রহ নীতিমালা’ লংঘন করে চাল সংগ্রহ এবং তা খাদ্যগুদামে সরবরাহের চেষ্টা করেছেন। তাই তাকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে।’
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমান বলেন, ‘মিল মালিককে দুই কার্যদিবসের মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে। জবাব পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’