ধর্মপাশায় আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে সরকারি জায়গা দখলের অভিযোগ

ধর্মপাশা প্রতিনিধি
ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ হোসেনের বিরুদ্ধে সরকারি জায়গা দখল করে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দ হোসেনকে স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ রাখার জন্য মৌখিকভাবে নির্দেশ দিয়েছেন। এর আগে গত শনিবার স্থানীয় যুবলীগ নেতা তরিকুল ইসলাম পলাশ এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ করেন।
অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সদরে খাদ্যগুদামের সামনে কংস নদের পাড়ে সৈয়দ হোসেনের ব্যক্তিগত জায়গা রয়েছে। তিনি সেখানে সপ্তাহদুয়েক আগে একটি ঘর নির্মাণের কাজ শুরু করেন। এ ঘর নির্মাণ করতে গিয়ে ঘরের দক্ষিণ দিকে সরকারি নদীর পাড় দখল করে প্রতিরক্ষা দেয়াল নির্মাণ কাজ করতে থাকেন। যদি এ প্রতিরক্ষা দেয়াল নির্মিত হয় তাহলে নদী থেকে খাদ্যগুদামে মালামাল উঠানামায় সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য তরিকুল ইসলাম পলাশ গত ২৬ এপ্রিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোষ্ট দেন। পরে গত শনিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মর্কার কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনতাসির হাসান সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ বিলকিস বলেন, ‘সৈয়দ হোসেন উপজেলা আওয়ামী লীগে শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হলেও সরকারি জায়গা দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করার মতো অন্যায়কে সমর্থন করিনা।’
সরকারি জায়গাতে ঘর নির্মাণ করছেন না দাবি করে অভিযুক্ত উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ হোসেন বলেন, ‘আমি আমার ব্যক্তিগত জায়গাতে ঘর নির্মাণ করছি।’
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবু তালেব বলেন, ‘নদীর পাড়ে সৈয়দ হোসেনের ব্যক্তিগত জায়গার পাশাপাশি সরকারি জায়গা রয়েছে। তাকে (সৈয়দ হোসেন) প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ যোগযোগ করতে বলা হয়েছে। সার্ভেয়ার জায়গা মেপে নিশ্চিত করে না দেওয়া পর্যন্ত স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ রাখতেও তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’