ধর্মপাশায় খেলার মাঠ দখল করে কাঠের ব্যবসা

ধর্মপাশা প্রতিনিধি
ধর্মপাশা জনতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের উত্তর পাশেই বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ। মাঠের উত্তর, দক্ষিণসহ বিভিন্ন প্রান্তে গাছের কাটা টুকরো রাখা হয়েছে। স্থানীয় কয়েকজন কাঠ ব্যবসায়ী এই গাছের কাটা টুকরোগুলো রেখেছেন এবং তারা দীর্ঘদিন ধরে এখানে কাঠের রমরমা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। ফলে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও স্থানীয় খেলোয়াড়েরা খেলাধুলা করতে পারছেন না। মাঠে ফেলে রাখা এসব গাছের বিভিন্ন অংশের সাথে ধাক্কা লেগে দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা থেকে মাঠে নামছেন না তাঁরা। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কাঠ ব্যবসায়ীদের একাধিকবার ডেকে এনে তাদেরকে সরে যেতে বললেও ব্যবসায়ীরা কর্ণপাত করছেন না।
সম্প্রতি সেখানে গিয়ে দেখা যায় কয়েকজন শ্রমিক কাঠ সরানো ও কেনাবেচার কাজ করছেন। ব্যবসায়ীদের নিয়োজিত এসব শ্রমিকেরা জানান, উপজেলার খয়েরদিরচর গ্রামের কাঠ ব্যবসায়ী দুলাল মিয়া, মহদীপুর গ্রামের আব্দুল জব্বার ও মোহনগঞ্জ উপজেলার বানিয়াহারী গ্রামের আবুল হোসেনসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী কাঠের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন।
কাঠ ব্যবসায়ী আবুল হোসেন জানান, তিনি মাঠ দখল করেননি। কিছুদিনের জন্য তিনি কাটা গাছগুলো রেখেছিলেন। এগুলো দ্রুত সরিয়ে নিবেন তিনি।
জনতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হাসান, রিয়াদুল, প্রদীপসহ কয়েকজন জানিয়েছে, মাঠে কাঠ কেনাবেচার ফলে তারা মাঠে খেলতে পারছে না। খেলতে গেলে দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে।
উপজেলার সদর ইউনিয়নের ফতেমানগর গ্রামের বাসিন্দা আকিয়ানূর বলেন, যদি গাছের টুকরোগুলো না সরানো হয় তাহলে এই মাঠে খেলাধুলা করা সম্ভব নয়। এগুলো সরানোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
জনতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালেক খান জানান, কাঠ ব্যবাসয়ীদেরকে এখানে কাঠ রাখতে নিষেধ দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে লিখিতভাবে জানানো হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কান্তি চক্রবর্তী জানান, খোঁজ নিয়ে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।